Categories
News

২০২২ সালের আন্তজার্তিক ক্ষেত্রের সেরা গুজবসমূহ


করোনা পরবর্তী সময়ে পৃথিবী আগের রূপে ফিরতে চেষ্টা করেছে সদ্য গত হওয়া বছরে। এই ফেরার চেষ্টাটা কতটুকু সফল সেই আলোচনা না হয় অন্য একদিন করা যাবে। তবে ঘরে বসে থাকা অলস সময় কিংবা লকডাউনের অভ্যস্ততায় ইন্টারনেট এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারকারীর সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে। অনলাইনে অনেকেই নিজেদের একটা লাভজনক কার্যক্রমও শুরু করেছেন। কেউ শুরু করেছেন অনলাইন সার্ভিস, কেউ প্রোডাক্ট সেলিং কিংবা কেউ মনোযোগী হয়েছেন কন্টেন্ট তৈরিতে। এই বাড়তে থাকা ব্যবহারকারীদের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ হারে বেড়েছে অনলাইনে ভুল তথ্যের প্রচারও। বছরটির সবচেয়ে আলোচিত বিষয় ছিল ইউক্রেন-রাশিয়ার যুদ্ধ। বিষয়টিকে কেন্দ্র করে নানাবিধ ভুল তথ্য, পরিসংখ্যান, ছবি ও ভিডিও প্রচার হয়েছে। ইউক্রেন-রাশিয়া বিষয়ক গুজবসমূহ নিয়ে আমাদের আলাদা আর্টিকেল প্রকাশিত হয়েছে। পড়া যাবে এই লিংকে। এই প্রতিবেদনে আমরা জানবো ইউক্রেন-রাশিয়া ইস্যু ব্যতীত আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রের আলোচিত গুজব সমূহ সম্পর্কে।

১। কুয়েতের সব চেয়ে ধনী ব্যক্তি নাসসি আল খিরকি মারা গিয়েছেন শীর্ষক গুজব (ছবিসহ)

বিভিন্ন সময়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কয়েকটি ছবিসহ “কুয়েতের সব চেয়ে ধনী ব্যক্তি নাসসি আল খিরকি মারা গিয়েছেন” শীর্ষক দাবি প্রচার হয়ে আসছে।

তবে, রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, প্রচারিত পোস্টগুলোতে সংযুক্ত মৃত ব্যক্তির নাম নাসসি আল খিরকি নয় বরং শেরন সুখেদো এবং তিনি কুয়েতের নয় বরং ত্রিনিদাদ অ্যান্ড টোবাগো এর ধনী ব্যক্তি। এছাড়া নাসসি আল খিরকি নামের কুয়েতের কোনো ধনী ব্যক্তির নাম ফোর্বসের বিলিয়নিয়ার তালিকায় খুঁজে পাওয়া যায়নি। তাছাড়া পোস্টগুলোতে সংযুক্ত গাড়ি, বিমান ও শয়নকক্ষের ছবিগুলোও ইন্টারনেট থেকে সংগৃহীত। 

বিষয়টি নিয়ে রিউমর স্ক্যানারের ফ্যাক্ট-চেক আর্টিকেল পড়ুন এই লিংকে

২। ফাঁসির দড়ি পরেও হাসি মুখে হ্যাকার হামজা বেনদেলাজ, যিনি  ৪০ কোটি ডলার হ্যাক করে আফ্রিকা ও ফিলিস্তিনে মানুষদের মাঝে বিলিয়ে দেন শীর্ষক গুজব

বিভিন্ন সময়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দুটি ছবিসহ “ফাঁসির দড়ি গলায় পড়ার পরেও এমন হাঁসি মুখে থাকা পৃথিবীর ইতিহাসে বিরল। এই সেই হামজা বেনদেলাজ, যিনি ২১৭ টি ব্যাংক থেকে ৪০ কোটি ডলার হ্যাক করেন এবং আফ্রিকা ও ফিলিস্তিনে অনাহারে অর্ধাহারে মরে যাওয়ার উপক্রম মানুষদের মাঝে বিলিয়ে দেন।আদালতে তাঁর ফাঁসির রায় হলে অবশেষে হাসি মুখে ফাঁসিতে ঝুলে পড়েন” শীর্ষক দাবি প্রচার হয়ে আসছে।

তবে, রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, হামজা বেনদেলাজের নামে প্রচারিত তথ্যটি সত্য নয় এবং উক্ত তথ্যের সাথে সংযুক্ত দুইটি ছবির একটি হামজা বেনদেলাজের হলেও ফাঁসির ছবিটি ভিন্ন একজন ব্যক্তির। হ্যাকিংয়ের দায়ে হামজা বেনদেলাজ এর ফাঁসি হয়নি, তার ১৫ বছরের জেল হয়েছিলো। প্রচারিত দুইটি ছবির মধ্যে হাতকড়া পড়ানো অবস্থায় হাসি মুখের ছবিটি হামজা বেনদেলাজের হলেও গলায় ফাঁসির দড়ি লাগানো থাকা হাস্যোজ্জ্বল ব্যক্তিটি হামজা বেনদেলাজ নয় বরং এটি ইরানের নাগরিক মাজিদ কাভুসিফার এর ছবি, যাকে বিচারককে খুনের অপরাধে প্রকাশ্যে ফাঁসি দেয়া হয়।  হামজা বেনদেলাজ হ্যাকিংয়ের মাধ্যমে অবৈধভাবে অর্থ হাতিয়ে নিয়ে আফ্রিকা ও ফিলিস্তিনে অনাহারে ও অর্ধাহারে মরে যাওয়ার উপক্রম মানুষদের মাঝে বিলিয়ে দেন নি বরং সেই টাকা তিনি বিলাসী জীবনযাপনের জন্য ব্যয় করেছেন।

বিষয়টি নিয়ে রিউমর স্ক্যানারের ফ্যাক্ট-চেক আর্টিকেল পড়ুন এই লিংকে

৩। মুমূর্ষু অবস্থার ছবি দিয়ে সুদানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী আকদ ইব্রাহিম দাবিতে ভুল ছবি প্রচার

বিভিন্ন সময়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মুমূর্ষু অবস্থার দুটি ছবি ও একটি সাধারণ ছবিসহ “আকদ ইব্রাহিম যিনি ১৯৯৫ সালে সুদানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী ছিলেন। সময় পরিবর্তনে বেশি সময় নেয় না, আল্লাহ যেমন উপরে উঠাতে জানে তেমনি আল্লাহ নিচে ফেলতে জানে।” শীর্ষক দাবি প্রচার হয়ে আসছে।

তবে, রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়,বৃদ্ধ ব্যক্তির মুমূর্ষু ছবিগুলো সুদানের কোনো প্রতিরক্ষামন্ত্রীর বর্তমান অবস্থার নয় বরং এগুলো ২০১৯ সালে কেনিয়ায় দুর্ভিক্ষের কবলে পরা এক বৃদ্ধ ব্যক্তির ছবি। এমনকি, ছবিতে সামরিক পোশাক পড়া ব্যক্তিটি সুদানের কোনো প্রতিরক্ষামন্ত্রী নয় বরং এটি সুদানের সেনা শাসিত রাজনৈতিক দলের প্রধান লেফটেন্যান্ট জেনারেল ওমর জেইন আল আবেদীনের ছবি।

বিষয়টি নিয়ে রিউমর স্ক্যানারের ফ্যাক্ট-চেক আর্টিকেল পড়ুন এই লিংকে

৪। নোবেল জয়ী সাভান্তে পাবোর ছাত্ররা তাঁকে পানিতে ফেলে দিয়েছে শীর্ষক গুজব

অক্টোবর এর শুরুর দিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে “নোবেল জয়ী সাভান্তে পাবোর ছাত্ররা তাঁকে পানিতে ফেলে দিয়েছে” শীর্ষক দাবি ছড়িয়েছিল।

তবে, রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, সাভান্তে পাবোর ছাত্ররা তাঁকে পানিতে ফেলে দেয়নি বরং পাবোর সহকর্মীরা তাঁকে পানিতে ফেলে দিয়েছে।

বিষয়টি নিয়ে রিউমর স্ক্যানারের ফ্যাক্ট-চেক আর্টিকেল পড়ুন এই লিংকে

৫। ইন্দোনেশিয়ার মুদ্রায় গণেশের ছবি শীর্ষক গুজব

বিভিন্ন সময়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দুটি ছবিসহ “ইন্দোনেশিয়ার মুদ্রায় গণেশের ছবি” শীর্ষক দাবি প্রচার হয়ে আসছে।

তবে, রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, হিন্দু দেবতা গণেশের ছবি থাকা ইন্দোনেশিয়ার ২০ হাজার রুপির ব্যাংক নোটটি বর্তমানে দেশটিতে প্রচলিত নেই বরং দেশটির কেন্দ্রীয় ব্যাংক ২০০৮ সালের ৩১ ডিসেম্বর গণেশের ছবি সম্বলিত নোটটির ছাপা বন্ধ করে দেয়।

বিষয়টি নিয়ে রিউমর স্ক্যানারের ফ্যাক্ট-চেক আর্টিকেল পড়ুন এই লিংকে

বাংলাদেশের সাথে সম্পর্কিত আন্তর্জাতিক বিভিন্ন ইস্যুতে ভুলতথ্য

বিখ্যাত ব্যক্তিদের উক্তি সম্পর্কিত ভুল তথ্য

আর্ট, থ্রিডি ছবি কিংবা সাধারণ ছবি ভিডিও ব্যবহার করে ছড়ানো ভুলতথ্য

আন্তর্জাতিক ইস্যুতে গণমাধ্যমে প্রচারিত ভুল কিংবা বিভ্রান্তিকর তথ্য ও ছবি

বছরজুড়ে বিভিন্ন ইস্যুতে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে আরো বেশকিছু বিষয় আলোচনায় ছিল। যেমনঃ

সুতরাং, ডিজিটাল মাধ্যমে ইন্টারনেট থেকে পাওয়া বিভিন্ন ছবির সাথে বিভিন্ন ব্যক্তির গল্প জুড়ে দেওয়া কিংবা বিখ্যাত কোনো ব্যক্তির নামে বানোয়াট বাণী প্রচার করে বিভ্রান্তি ছড়ানোর উদাহরণ পাওয়া যায়। পাশাপাশি ফাইল ছবি উল্লেখ না করে এক ঘটনায় ভিন্ন এক ঘটনার ছবি প্রচার করতে দেখা যায় দেশীয় এবং আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলোকেও। কিছু ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক ঘটনার এই বিষয়গুলো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের সাধারণ ব্যবহারকারীরা সাধারণত ভাষাগত কারণে যাচাই করার ইচ্ছাও পোষণ করেননা। তবে প্রযুক্তির সহায়তায় বিভিন্ন ট্রান্সলেশন সার্ভিস ব্যবহার করে বিষয়গুলো সম্পর্কে ধারণা নেয়া যায়। এছাড়াও রিভার্স ইমেজ সার্চ কিংবা দেশীয় ফ্যাক্ট-চেকিং প্রতিষ্ঠানগুলোর সহযোগিতায় এসকল তথ্যের সঠিকতা সম্পর্কে জানা যায়। 



Source link