Categories
Mobile Mobile price BD

50MP ট্রিপল ক্যামেরার সঙ্গে এন্ট্রি নিচ্ছে Moto G53, থাকবে একদম নতুন Snapdragon চিপ


মোটোরোলা (Motorola) সম্প্রতি চীনে Moto G53 নামে একটি বাজেট স্মার্টফোন লঞ্চ করেছে। একই নামের কিন্তু ভিন্ন স্পেসিফিকেশন এবং ডিজাইনের একটি হ্যান্ডসেট শীঘ্রই বিশ্ব বাজারে লঞ্চ হবে বলে আশা করা হচ্ছে। এটিকে সম্প্রতি ভারতের বিআইএস (BIS), মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের এফসিসি (FCC) এবং সংযুক্ত আরব আমিরশাহীর (TDRA) সহ বিভিন্ন সার্টিফিকেশন সাইটে দেখা গেছে। আর এখন, গ্লোবাল Moto G53 মডেলটি বাধ্যতামূলক জিসিএফ (GCF) সার্টিফিকেশন লাভ করেছে, যা এর আসন্ন লঞ্চের ইঙ্গিত দিয়েছে। সাম্প্রতিক সার্টিফিকেশনটি থেকে কি কি তথ্য প্রকাশ্যে এল এবং এখনও পর্যন্ত Moto G53-এর গ্লোবাল মডেলটি সম্পর্কে আর কি কি জানা গেছে, আসুন দেখে নেওয়া যাক।

Moto G53 লাভ করেছে GCF-এর অনুমোদন

XT2335-1 মডেল নম্বর সহ একটি মোটোরোলা স্মার্টফোন গ্লোবাল সার্টিফিকেশন ফোরাম (GCF) ওয়েবসাইটে তালিকাভুক্ত হয়েছে। পূর্ববর্তী তালিকা অনুযায়ী, এই মডেল নম্বরটি মোটো জি৫৩-এর গ্লোবাল সংস্করণের সাথে যুক্ত। জানিয়ে রাখি, সেলুলার নেটওয়ার্কে কাজ করে এমন সব ধরনের ডিভাইসের জন্য জিসিএফ সার্টিফিকেশন অপরিহার্য। তালিকাটি ডিভাইসটির কোনও স্পেসিফিকেশন প্রকাশ করেনি, তবে এটি এর শীঘ্রই লঞ্চের ইঙ্গিত দেয়। যদিও, মোটো জি৫৩-এর বিষয়ে এখনও কোম্পানির তরফে কিছু নিশ্চিত করা হয়নি, তবে আশা করা যায় খুব শীঘ্রই এই ফোনটির সম্পর্কে আরও তথ্য অনলাইনে প্রকাশিত হবে।

প্রসঙ্গত, আগেই উল্লেখ করা হয়েছে যে, গ্লোবাল মোটো জি৫৩ স্পেসিফিকেশন এবং ডিজাইন- উভয় ক্ষেত্রেই এর চীনা সংস্করণের থেকে অনেকটাই ভিন্ন হবে। এটি চীনা সংস্করণে ব্যবহৃত কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৪৮০+ চিপের পরিবর্তে নতুন স্ন্যাপড্রাগন ৪ জেন ১ প্রসেসরের সাথে আসতে পারে। আর সেলফি এবং ভিডিও কলের জন্য, ফোনটিতে একটি ১৬ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা থাকতে পারে।

এছাড়াও, Moto G53-এর গ্লোবাল মডেলে চীনা সংস্করণের চেয়ে উন্নত ডিসপ্লে থাকবে বলে জানা গেছে। স্মার্টফোনটিতে ৬.৬ ইঞ্চির ওলেড (OLED) প্যানেল থাকতে পারে যা ফুল-এইচডি+ রেজোলিউশন এবং ৯০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট অফার করবে। অন্যদিকে, চীনা ভ্যারিয়েন্টে ১২০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট সহ ৬.৫ ইঞ্চির এলসিডি প্যানেল রয়েছে। হ্যান্ডসেটটি ৫০ মেগাপিক্সেলের প্রাইমারি সেন্সর সহ ট্রিপল-রিয়ার ক্যামেরা কনফিগারেশনের সাথে আসবে বলে মনে করা হচ্ছে। প্রধান ক্যামেরাটি একটি ৮ মেগাপিক্সেলের সেকেন্ডারি সেন্সর এবং একটি ২ মেগাপিক্সেলের সহায়ক সেন্সরের সাথে যুক্ত থাকতে পারে।



Source link