Categories
News

চিত্রনায়ক ফারুকের টাকার অভাবে হাসপাতাল থেকে রিলিজ না পাওয়ার তথ্যটি বিভ্রান্তিকর


সম্প্রতি ‘টাকার অভাবে সিঙ্গাপুরের হাসপাতাল থেকে রিলিজ পাচ্ছেন না চিত্রনায়ক ফারুক’ শীর্ষক শিরোনামে একটি তথ্য গণমাধ্যম সূত্রে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে। 

গণমাধ্যমে প্রচারিত এমন কিছু প্রতিবেদন দেখুন বায়ান্ন, ইনকিলাব, আমাদের সময়, বিডি২৪লাইভ, ডেইলি বাংলাদেশ, জুম বাংলা, বিবিএস বাংলা, দেশ টিভি

গণমাধ্যমের ফেসবুক পেইজে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন দেশ টিভি, আমাদের সময়, জুম বাংলা। পোস্টগুলোর আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানে, এখানে, এখানে

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, টাকার অভাবে সিঙ্গাপুরের হাসপাতাল থেকে চিত্রনায়ক ফারুকের রিলিজ না পাওয়ার তথ্যটি সঠিক নয় বরং তার স্ত্রীর বক্তব্যকে বিকৃতভাবে গণমাধ্যমে উপস্থাপন করা হয়েছে। 

কি-ওয়ার্ড অনুসন্ধানের মাধ্যমে বাংলাদেশের মূলধারার জাতীয় দৈনিক সমকালে গত ৮ জানুয়ারি “সিঙ্গাপুরে সুস্থ নায়ক ফারুক, তবে ফিরতে পারছেন না দেশে” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত ফারুকের স্ত্রী ফারহানা ফারুকের মূল সাক্ষাৎকারের প্রতিবেদনটি খুঁজে পাওয়া যায়। 

প্রতিবেদনটিতে বরেণ্য অভিনেতা ও সংসদ সদস্য  ফারুকের স্ত্রী ফারহানা পাঠান ফারুকের দেশে না ফেরা প্রসঙ্গে বলেন, সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে প্রায় দুই বছর চিকিৎসা নিচ্ছি। ওই হাসপাতালের চিকিৎসা অনেক ব্যয়বহুল। অনেক টাকা বিল হয়েছে। সম্পত্তি বিক্রি ও ব্যাংকের টাকা দিয়ে কিছু বিল দিয়েছি। এখন চেষ্টা করছি বাকি বিল পরিশোধের। সব বিল পরিশোধ করলেই কেবল হাসপাতাল থেকে ছুটি মিলবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘দেশে আসার জন্য ফারুক উদগ্রীব। জমে আছে সংসদীয় এলাকার অনেক কাজকর্ম। দেশে ফিরে কাজগুলো সারবেন বলেছেন। আগামী মার্চের মাঝামাঝি দেশে আসার ইচ্ছা রয়েছে। তবে সবকিছু নির্ভর করছে বিল পরিশোধের ওপর। দেখা যাক কী হয়।’

তবে প্রতিবেদনটির কোথাও ফারুক টাকার অভাবে সিঙ্গাপুরের হাসপাতাল থেকে রিলিজ পাচ্ছেন না চিত্রনায়ক ফারুক এমন কোনো তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি।

পরবর্তীতে মূলধারার অনলাইন গণমাধ্যম Banglanews24 এ একইদিনে “হাসপাতালের বিল দিতে পারছি না, এটা ঠিক নয়: ফারুকের স্ত্রী” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়। 

প্রতিবেদনটিতে ফারুকের স্ত্রী ফারহানা ফারুককে উদ্ধৃত করে বলা হয়, হাসপাতালের বিল দিতে পারছি না এটা একদমই ঠিক নয়। এমন কথা যেনো না লেখা হয়। সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী এক থেকে দেড় মাসের মধ্যেই দেশের ফিরবেন ফারুক। 

এছাড়া ফারুকের চিকিৎসার খরচ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরে এখানে ফারুকের চিকিৎসা করা হচ্ছে। এই হাসপাতালের চিকিৎসা খরচ অনেক বেশি। এজন্য আমরা আমাদের সম্পত্তি বিক্রি করেছি। ফ্ল্যাট ও জমি ছাড়া ব্যাংকের টাকাও খরচ করেছি। প্রধানমন্ত্রী ফারুকের চিকিৎসার জন্য ১লাখ ডলার দিয়েছিলেন। আমরা তার কাছে চিরকৃতজ্ঞ। এখন আমরা পারিবারিকভাবে হাসপাতালের যাবতীয় বিল পরিশোধ করছি। বাংলাদেশ থেকে সিঙ্গাপুরে টাকা যোগাড় করে আনতে গেলেও একটু সময় লাগে। তার মানে এমনটি নয় আমরা বিল পরিশোধ করতে পারছি না। সবাই ফারুকের জন্য দোয়া করবেন। ফারুক এখন সুস্থ আছেন।’

মূলত, ২০২১ সালের ৪ মার্চ নিয়মিত চেকআপের জন্য সিঙ্গাপুর যান অভিনেতা ও ঢাকা-১৭ আসনের সংসদ সদস্য ফারুক। সেখানে তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তবে সম্প্রতি তিনি সুস্থ হলেও এখনো সিঙ্গাপুরেই অবস্থান করছেন। এ প্রসঙ্গে গত ৮ জানুয়ারি জাতীয় দৈনিক সমকালে একটি সাক্ষাৎকার দেন তার স্ত্রী ফারহানা পাঠান ফারুক। সাক্ষাৎকারে তিনি হাসপাতালের বিল প্রসঙ্গে বলেন, ‘অনেক টাকা বিল হয়েছে। সম্পত্তি বিক্রি ও ব্যাংকের টাকা দিয়ে কিছু বিল দিয়েছি। এখন চেষ্টা করছি বাকি বিল পরিশোধের। সব বিল পরিশোধ করলেই কেবল হাসপাতাল থেকে ছুটি মিলবে।’

পরবর্তীতে তার এই সাক্ষাৎকারটিকেই বিকৃতভাবে হাসপাতালের বিল দিতে না পারার দাবিতে বিভিন্ন মূলধারার গণমাধ্যমে প্রচার করা হলে ফারহানা ফারুক নিজেই বিষয়টি সঠিক নয় বলে গণমাধ্যমকে জানান। 

সুতরাং, টাকার অভাবে সিঙ্গাপুরের হাসপাতাল থেকে চিত্রনায়ক ফারুকের রিলিজ না পাওয়ার তথ্যটি সঠিক নয়; এটি সম্পূর্ণ বিভ্রান্তিকর। 

তথ্যসূত্র 



Source link