Categories
ফ্রিল্যান্সিং

পড়া মনে রাখার সবচেয়ে সহজ ২ টি উপায়


পড়া মনে রাখার সবচেয়ে সহজ ২ টি উপায়

খুব ভালো হতো যদি আমরা কোনো একটা টপিক একবার পরেই মনে রাখতে পারতাম। তাইনা?আজকের এই পোস্ট শিক্ষার্থীদের জন্য খুবই উপকারী। আজকের এই পোস্ট এর মাধ্যমে আপনি এমন দুইটি টেকনিক জানতে চলেছেন যা আপনার শিক্ষা জীবনকে সম্পূর্ণ পরিবর্তন করে দিবে।

পড়া মনে রাখার সবচেয়ে সহজ ২ টি উপায়

আপনি যদি এই দুইটি টেকনিক ফলো করেন আমি আপনাদের কথা দিচ্ছি যে আপনি এখনকার চেয়ে অনেক ভালোভাবে এবং অনেকদিন পর্যন্ত কোনো পড়াকে বা কোনো টপিককে মনে রাখতে পারবেন। সুতরাং পোস্টটি মনোযোগ সহকারে পড়বেন।

পড়া মনে রাখার সহজ ২ টি উপায়

সর্বপ্রথম আপনি আমাকে একটা কথা বলুন। যে যখন আপনি কোনো মজাদার মুভি দেখেন বা যখন আপনি একটা সুন্দর ব্যক্তিকে দেখেন। যখন আপনি কোনো এক জায়গায় কোনো সেলিব্রিটি কাউকে দেখেন এবং তার সাথে ছবি তোলেন। তো এই সকল মূহুর্ত গুলো আপনার সব সময় মনে থাকে। তাই না? যখন আপনি কোনো মুভি দেখেন সেটি আপনার অনেকদিন পর্যন্ত মনে থাকে।

তো আপনার ব্রেন বা আপনার মস্তিস্ক কিন্তু এখানে আপনাকে বোকা বানাচ্ছে। আপনি তাকে যেটা মনে রাখতে বলছেন সেটাকে সে বার বার ভুলে যাচ্ছে। আর যে জিনিসটি তার ভালো লাগছে সে জিনিসটিকে সে সারাজীবন মনে রাখছে। এখন একবার চিন্তা করে দেখুন যে, এই ব্রেন পাওয়ার যদি প্রতিটি ফিল্ড এ ব্যবহার হতো তাহলে কেমন হতো।

যদি আপনি কোনো টপিক কে পড়ে কোনো সাল কোনো কঠিন সূত্র কে পড়ে সারাজীবন মনে রাখতে পারতেন। তাহলে কেমন হতো? আমরা আগের যে উদাহরণগুলো দেখলাম সেখানে একটা জিনিস পরিস্কার যে, যে জিনিসগুলোকে আমাদের ভালো লাগে। যে জিনিসগুলোকে আমাদের ব্রেন মেনে নিচ্ছে যে এগুলো ভালো লাগার জিনিস। এগুলোতে স্পেশাল কিছু রয়েছে এগুলো তে Interest রয়েছে। সেইগুলো জিনিস আমাদের সারাজীবন মনে থেকে যায়।

মোট কথা হলো, Interest অর্থাৎ যে কাজে ব্রেনের মজা রয়েছে, সেই কাজকে আমাদের ব্রেন সারাজীবন মনে রাখে।ব্রেন এই কাজগুলোকে সারাজীবন এর জন্য রেখে ‍দেয়। তো প্রথম যে পদ্ধতিকে পেলাম সেটা হলো Interest. যদি আপনি পড়াশোনা করেন কিন্তু Interest নেই। যদি আপনি কোনো কাজ করেন কিন্তু এতে Interest না থাকে আপনি জোর করে করছেন। কারণ বাড়ির লোক করতে বলেছে তাই করতে হচ্ছে।

তো Interest নেই কিন্তু তারপরেও আপনি সেই কাজ করেন বা পড়াশোনা করেন। তাহলে জেনে রাখুন। যে একবার নয় ১০ বার নয় ১০০ বার পরেও সেই পড়া আপনার মনে থাকবে না। কিছু মনে করবেন না এর পরিবর্তে যদি কোনো মেয়ে আপনাকে তার ফোন নাম্বার দেয় বা আপনার কোনো বন্ধু আপনাকে কেনো গোপন কথা বলে। তখন আপনার ব্রেন পূর্ণ শক্তিতে তা মনে রাখে।

আপনার পড়া মনে না থাকার সবচেয়ে বড় কারণ হলো এই Interest । অন্যান্য জিনিস এর মতো পড়াশোনা কেউ Interest বানাতে হবে। তাই না? কিন্তু কিভাবে পড়াশোনাকে Interest বানাবো দেখুন। যেদিন আপনার জীবনের একটি লক্ষ্যকে স্থির করে নিবেন। সেইদিন থেকে সেই লক্ষ্যে পৌছানোর জন্য সাহায্য করা প্রতিটি জিনিসে আপনার Interest চলে আসবে। আর পড়াশোনাই Interest না থাকার এটাই হলো সবথেকে বড় কারণ।

যে আমাদের লক্ষ্য বা টার্গেট ঠিক থাকেনা। এবং আমাদের কনফিডেন্স এর অভাব, যে আমি লাইফে এটাই অর্জন করবো। আর এটা আমি করেই ছাড়ব। আপনি একবার সিদ্ধান্ত নিন যে আপনি পড়াশোনা করে এই সপ্নকে পূরণ করবেন। আর একবার সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর যখনি আপনি পড়তে বসবেন। তখন আপনি সেই লক্ষ্য বা সপ্ন নিয়ে ভাবুন। যেটাকে আপনি পড়াশোনা করে অর্জন করবেন। তারপর দেখুন তো পড়াশোনায় মজা পান কিনা বা পড়াশোনায় মন বসে কিনা। পড়াকে মনে রাখার প্রথম মাধ্যম হলো Interest.

দ্বিতীয় যে পাওয়ারফুল টিপস সেটি হলো visuals. আমরা যখন কোনো মুভি দেখি সেটার কাহিনি আমাদের সবার অনেকদিন পর্যন্ত মনে থাকে। তাই আমরা এক নাগাড়ে না পড়ে আপনারা আপনাদের পড়াকে দিয়ে মুভি বা কারেক্টার বানিয়ে ফেলার চেষ্টা করবেন। তাহলে দেখবেন আপনার পড়া খুব সহজেই মনে থাকছে।

আরু জানুনঃ

সবার আগে আপডেট তথ্য পেতে নিয়মিত আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করুন এবং আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন। ধন্যবাদ।



Source link