Categories
News

পর্ণ তারকার সাথে ভিডিওর ব্যক্তিটি নেইমার নয়


সম্প্রতি, “দলের লোক জখন মিয়া খলিফার আদর খায়” শীর্ষক শিরোনামে একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচারিত হচ্ছে।

ফেসবুকে প্রচারিত ভিডিওপোস্ট দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এখানে
পোস্টগুলোর আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানেএখানে

যা দাবি করা হচ্ছে

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে ব্লন্ড চুলের একজন পুরুষ পর্ন তারকা মিয়া খলিফার সঙ্গে অন্তরঙ্গ অবস্থায় আছে। ভিডিওটির ক্যাপশনে বলা হচ্ছে, “দলের লোক জখন মিয়া খলিফার আদর খায় 😭”।

গুজবের সূত্রপাত

ফেসবুকের অ্যাডভান্স সার্চিং টুল ব্যবহারে দেখা যায় যে, ২৬ ডিসেম্বরে  Banny Di Vlog নামে একটি ফেসবুক পেইজে রাত ১ টা ১৯ মিনিটে “দলের জখন মিয়া খলিফার আদর খায়” শীর্ষক ক্যাপশনে এই ভিডিওটি প্রথম আপলোড হয়।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধানে জানা যায় যে, ভিডিওতে নেইমারের চুলের রঙের সাথে সাদৃশ চুলের যে ব্যক্তিকে দেখা যাচ্ছে সে প্রকৃতপক্ষে নেইমার নয়, বরং মিয়া খলিফার প্রেমিক ঝে কোর্টেজ (Jhay Cortez)

ভিডিওতে যে ব্যক্তিকে নেইমার হিসেবে দাবি করা হচ্ছে তার ঘাড়ের ট্যাটুটি স্পষ্টভাবে দেখা যাচ্ছে। ঐ ট্যাটুটিকে লীড ধরে এগিয়ে ‘Bodyartguru.com’ নামের ওয়েবসাইটে “Neymar Jr’s 46 Tattoos & Their Meanings” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়।

ঐ প্রতিবেদন থেকে নেইমারের ঘাড়ের বা’পাশের ট্যাটুর একটি ছবি খুঁজে পাওয়া যায়।

প্রতিবেদনে নেইমারের ঘাড়ের ডান পাশের ট্যাটুটিরও একটি স্পষ্ট ছবি খুঁজে পাওয়া যায়।

এছাড়া, নেইমারের ভ্যারিফাইড পেইজ থেকে গত ২৬ ডিসেম্বর আপলোড করা পোস্টেও নেইমারের ঘাড়ের বা’পাশের ট্যাটুটি স্পষ্ট দেখা যাচ্ছে।  

একইভাবে, ভ্যারিফাইড পেইজটি থেকে ১৭ অক্টোবর করা একটি পোস্ট-এর ছবিতে নেইমারের ঘাড়ের ডান দিকের ট্যাটুটিকে দেখা যায়।

ভালোভাবে লক্ষ করলে দেখা যায়, নেইমারের ঘাড়ের ডান বা বাম পাশের ট্যাটু দুইটির কোনোটিই ভিডিওর ব্যাক্তিটির ঘাড়ের ট্যাটুর সঙ্গে মেলে না। 

পরবর্তীতে, DANNYHARCK নামে একটি ইউটিউব চ্যানেলে “JHAY CORTEZ Y MIA KHALIFA CONFIRMAN RELACIÓN AMOROSA.” শীর্ষক শিরোনামে একটি শর্ট ভিডিও খুঁজে পাও যায়।

ভিডিওটিতে Jhay Cortez নামের ঐ ব্যক্তির ঘাড়ের ট্যাটুটির সাথে ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া ভিডিওর ব্যাক্তির ঘাড়ের ট্যাটুর হুবুহু মিল পাওয়া যায়।

পরবর্তীতে, ১৬ জানুয়ারি ২০২২ তারিখে ‘Market Research Telecast’ নামে একটি সংবাদ মাধ্যমে “Mia Khalifa and Jhay Cortez Romance scene in Lamborghini” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়।

প্রতিবেদনটিতে বলা হয়েছে, Jhay Cortez সোশ্যাল মিডিয়ায় মিয়া খলিফার সাথে ছবি শেয়ার করে তাদের বেশ কিছু মাস ধরে চলে আসা প্রণয়ের কথা নিশ্চিত করেছে। তারা এখন একসাথে থাকছেন এবং দুজন দুজনের সাথে পরিবার গঠন করতে চাইছেন।

পরবর্তীতে, অনুসন্ধানে জানা যায়, Jhay Cortez একজন পরতু রিকান সঙ্গীত শিল্পী। ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া সেই ভিডিওটির সম্পূর্ণ ভার্সন ‘romeojuliet444’ নামে একটি ইউটিউব চ্যানেলে “Mia Khalifa with new boyfriend” শীর্ষক শিরোনামে খুঁজে পাওয়া যায়। 

এই ভিডিওতে মিয়া খলিফার সঙ্গে থাকা ব্যক্তির চুলের স্টাইল, ঘাড় ও কাধের ট্যাটু খুব ভালোভাবে দেখা যাচ্ছে। Jhay C০rtez নামের পর্তু রিকান সঙ্গীত শিল্পীর ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইল ঘুড়ে দেখা যায় তাঁর হেয়ার স্টাইল, ঘাড় ও কাঁধের ট্যাটু ভিডিওতে থাকা ব্যক্তির হেয়ার স্টাইল, ঘাড় ও কাঁধের ট্যাটুর সাথে হুবুহু মিলে যায়। এছাড়া, ভিডিওতে দেখানো ব্যক্তির কানের রিং ও Jhay Cortez এর কানে পরিহিত রিং এর সাথে হুবুহু মিল খুঁজে পাওয়া যায়।

মূলত, নেইমারের চুলের রঙের সাথে সাদৃশ্যপূর্ণ চুলের এক পুরুষের পর্ন তারকা মিয়া খলিফার সাথে অন্তরঙ্গ একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। তবে ভিডিওটির ব্যাক্তিটি আসলে নেইমার নয়। এটি প্রকৃতপক্ষে মিয়া খলিফা ও তার প্রেমিক Jhay Cortez এর একটি অন্তরঙ্গ ভিডিও । চুলের সাদৃশ্য, ঘাড়ে ট্যাটু আর কানে রিং থাকায় ভিডিওর ব্যক্তিটিকে নেইমার দাবিতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচার করা হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, নেইমারের পরবর্তী বিশ্বকাপ খেলার ঘোষণা শীর্ষক একটি তথ্য ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ার প্রেক্ষিতে ফ্যাক্টচেক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে রিউমর স্ক্যানার।

সুতরাং, পর্ন তারকা মিয়া খলিফার সঙ্গে অন্তরঙ্গ মূহুর্তের ভিন্ন এক পুরুষকে ফুটবল খেলোয়াড় নেইমার দাবিতে ফেসবুকে প্রচার করা হচ্ছে; যা সম্পূর্ণ মিথ্যা।

তথ্যসূত্র





Source link