Categories
News

ডিএমপি কমিশনার গোলাম ফারুক জন্মতারিখ পরিবর্তন করেছেন শীর্ষক দাবিটি ভুয়া


সম্প্রতি “ডিএমপি কমিশনার গোলাম ফারুকের গত ৩১ ডিসেম্বর অবসরে যাওয়ার কথা কিন্তু ১০ মাস বেশি চাকরি করার উদ্দেশ্যে তিনি নিজ জন্মতারিখ ০১ জানুয়ারি ১৯৬৪ সাল থেকে পরিবর্তন করে ০১ অক্টোবর ১৯৬৪ সাল করেছেন” শীর্ষক একটি দাবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচার করা হয়েছে।

উক্ত দাবিতে ফেসবুকে প্রচারিত কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে
পোস্টগুলোর আর্কাইভ দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, চাকরির মেয়ার ১০ মাস বৃদ্ধির উদ্দেশ্যে ডিএমপি কমিশনার খন্দকার গোলাম ফারুক নিজ জন্ম তারিখ ০১ জানুয়ারি ১৯৬৪ সাল থেকে পরিবর্তন করে ০১ অক্টোবর ১৯৬৪ সাল করেননি বরং তার জন্মতারিখ পূর্বে থেকে ০১ অক্টোবর ১৯৬৪ সাল ছিলো।

কি-ওয়ার্ড সার্চ পদ্ধতি ব্যবহার করে, বাংলাদেশ পুলিশের নিউজ পোর্টালে ২০২২ সালের ২৩ অক্টোবর তারিখে “ডিএমপির নতুন কমিশনার খন্দকার গোলাম ফারুক” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়। প্রতিবেদনটি থেকে জানা যায়, ২০২২ সালের ২৩ অক্টোবর তারিখে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) নতুন কমিশনার হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন খন্দকার গোলাম ফারুক। তার আগে তিনি পুলিশ স্টাফ কলেজের রেক্টর (অতিরিক্ত আইজিপি) হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন।

উক্ত প্রতিবেদন থেকে আরও জানা যায়, খন্দকার গোলাম ফারুকের জন্ম ১৯৬৪ সালের ০১ অক্টোবর টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর উপজেলার ঘাটানদি গ্রামে।

Screenshot Source: Bangladesh Police News Portal

পাশাপাশি, দেশীয় মূলধারার সংবাদমাধ্যম বণিক বার্তার ওয়েবসাইটে ২০২২ সালের ২৪ অক্টোবর তারিখে “ডিএমপির নতুন কমিশনার খন্দকার গোলাম ফারুক” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়। এই প্রতিবেদনেও খন্দকার গোলাম ফারুক সম্পর্কে একই তথ্য দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি প্রতিবেদনটিতে উল্লেখ করা হয়েছে, “১৯৬৪ সালের ১ অক্টোবর টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর উপজেলার ঘাটানদি গ্রামে খন্দকার গোলাম ফারুকের জন্ম। সে হিসাবে ২০২৩ সালের ১ অক্টোবর পর্যন্ত তার চাকরির মেয়াদ রয়েছে।”

উক্ত প্রতিবেদনগুলো ছাড়াও, যুগান্তর, বিডিনিউজ২৪, জাগো নিউজ ২৪, মানবজমিন সহ একাধিক মূলধারার গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদনেও উল্লেখ করা হয়েছে খন্দকার গোলাম ফারুক ১৯৬৪ সালের ০১ অক্টোবর তারিখে জন্মগ্রহণ করেছেন। 

এছাড়াও অনুসন্ধানের মাধ্যমে বাংলাদেশ পুলিশের ওয়েবসাইটে খন্দকার গোলাম ফারুকের অনাপত্তি সনদ (NOC) খুঁজে পাওয়া যায়। সনদটিতে খন্দকার গোলাম ফারুকের অবসর গ্রহণের তারিখ হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে ২০২৩ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর।

অনুসন্ধানের মাধ্যমে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে  ২০১৬, ২০১৭, ২০১৮, ২০১৯, ২০২০, ২০২১ এবং ২০২২ সালের ০১ অক্টোবর তারিখে খন্দকার গোলাম ফারুক কে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানিয়ে প্রচারিত পোস্ট খুঁজে পাওয়া যায়।

মূলত, “ডিএমপি কমিশনার খন্দকার গোলাম ফারুকের গত ৩১ ডিসেম্বর অবসরে যাওয়ার কথা কিন্তু ১০ মাস বেশি চাকরি করার উদ্দেশ্যে তিনি নিজ জন্মতারিখ ০১ জানুয়ারি ১৯৬৪ সাল থেকে পরিবর্তন করে ০১ অক্টোবর ১৯৬৪ সাল করেছেন” শীর্ষক একটি দাবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে। তবে রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে, ২০১৬ থেকে ২০২২ সাল অবদি প্রতিবছর ০১ অক্টোবর খন্দকার গোলাম ফারুকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানিয়ে প্রচারিত ফেসবুক পোস্ট খুঁজে পাওয়া যায়। এছাড়া একাধিক দেশীয় গণমাধ্যমে প্রচারিত সংবাদ থেকেও জানা যায় তার জন্মদিন ১৯৬৪ সালের ০১ অক্টোবর। তাছাড়া বাংলাদেশ পুলিশের ওয়েবসাইট থেকে প্রাপ্ত খন্দকার গোলাম ফারুকের ২০২১ সালের একটি অনাপত্তি সনদ (NOC) থেকে জানা যায় তার চাকরির মেয়ার ২০২৩ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর শেষ হবে। 

সুতরাং, “চাকরির মেয়ার ১০ মাস বৃদ্ধির উদ্দেশ্যে ডিএমপি কমিশনার খন্দকার গোলাম ফারুক নিজ জন্ম তারিখ পরিবর্তন করেছেন” শীর্ষক দাবিটি সম্পূর্ণ মিথ্যা।

তথ্যসূত্র



Source link