Categories
ফ্রিল্যান্সিং

ইমোর ৩টি নতুন নিরাপত্তা আপডেট ২০২৩। না জানলেই বিপদ!


ইমোর ৩টি নতুন নিরাপত্তা আপডেট ২০২৩। না জানলেই বিপদ!

যদি আপনার ইমু অ্যাকাউন্ট এর আইডি এবং পাসওয়ার্ড দুটোই অন্য কেউ নিয়ে যায় তারপরেও সে আপনার ইমুতে প্রবেশ করতে পারবে না। কারন রিসেন্টলি ইমোতে নতুন তিনটি আপডেট যুক্ত করা হয়েছে। যে আপডেট গুলো আপনার ইমোতে সেট করলে আপনার ইমো অনেকাংশে নিরাপদ থাকবে।

ইমোর ৩টি নতুন নিরাপত্তা আপডেট ২০২৩। না জানলেই বিপদ!

আমার মনে হয় যে প্রত্যেক ইমো ব্যাবহারকারীর এই তিনটা সেটিংস অবশ্যই করে ফেলা উচিত। তো চলুন কথা না বাড়িয়ে প্রসেস টা বলে ফেলি। 

ইমোর ৩টি নতুন নিরাপত্তা আপডেট ২০২৩

ইমোর ১ নং সিকিউরিটি

শুরুতে আপনাকে আপনার ইমু একাউন্ট যেতে হবে। যাওয়ার পর এখানে যে প্রোফাইল পিকচার রয়েছে এখানে একটা  ক্লিক করতে হবে।

আরও পড়ুনঃ এন্ড্রয়েড ফোনের একটি বিপদজনক সেটিংস | Android Phone Dangerous Settings

imo profile

ক্লিক দেওয়ার পর এখান থেকে সেটিংস এ ক্লিক করতে হবে।

imo setting

সেটিংস এ যাওয়ার পর এইখানে দেখবেন  একটা অপশন আছে একাউন্ট অ্যান্ড সিকিউরিটি। আপনাকে এখানে একটা ক্লিক করতে হবে।

imo account & security

এখানে ক্লিক করার পর  এখানে শুরুতে দেখাবে টু স্টেপ ভেরিফিকেশন। নিচের দিকে এ অপশনটিতে ক্লিক করেন তাহলে আপনার টু-স্টেপ ভেরিফিকেশন’ অপশনটি চালু হবে।

বিঃ দ্রঃ টু স্টেপ ভেরিফিকেশন অপশন না থাকলে অপেক্ষা করতে হবে।

imo 2 step verification

এরপর ওকে করতে হবে।

আর হ্রাক হবে না ইমো একাউন্ট

এখন আপনি এখানে তিনটি অপশন দেখতে পাবেন ।

ইমোর ৩টি নতুন নিরাপত্তা আপডেট ২০২৩

১. ট্রাস্টেড ডিভাইস ভেরিফিকেশন ।

২.এসএমএস ভেরিফিকেশন।

৩. সিকিউরিটি কোশ্চেন ।

এক্ষেত্রে আমি আপনাদের কে বলবো এসএমএস ভেরিফিকেশন টা চালু করে দেওয়ার জন্য। কারন এইটা আমার কাছে সবথেকে ট্রাস্টেড মনে হয়। কারণ ট্রাস্টেড ডিভাইস ভেরিফিকেশন এর মধ্যে একটি প্রবলেম হচ্ছে ডিভাইস যদি কখনো হারিয়ে যায় তখন আপনাকে এই ইমো একাউন্ট  নিয়ে অনেক ঝামেলা পোহাতে হবে। তবে এটা উদ্ধার নাও করতে পারেন। 

আবার সিকিউরিটি কোশ্চেন অনেক সময় আপনারা ভুল যেতে পারেন। কিন্তু এখানে এসএমএসটা যদি চালু করে দেন তাহলে কিন্তু আপনার একাউন্টটা ১০০% নিরাপদ থাকবে। কারণ যদি আপনার ইমুতে অন্য কেউ প্রবেশ করতে চায় তাহলে আপনার সিমে একটা কোড আসবে। সেই কোড টা বসানোর আগ পর্যন্ত কিন্তু কেও প্রবেশ করতে পারবে না। এটা চালু করার জন্য আপনাকে এসএমএস ভেরিফিকেশন, এখানে একটা ক্লিক করতে হবে।

ইমোর ৩টি নতুন নিরাপত্তা আপডেট

ক্লিক করার পর আপনার সামনে একটা ফোন নাম্বার চাইবে । এখানে ফোন নাম্বার টা দিবেন।

ইমোর নতুন নিরাপত্তা আপডেট

তারপর এখানে টিক চিহ্নতে ক্লিক করবেন ।

ইমোর নিরাপত্তা আপডেট ২০২৩

তারপর ওকে করবেন।

ইমোর ৩টি নিরাপত্তা আপডেট ২০২৩

এখন একটা এসএমএস এই নাম্বারে যাবে । এখানে কোডটি বসিয়ে দিবেন।

ইমোর ৩টি নিরাপত্তা আপডেট

কোড টা বসানোর পর এখন নাম্বারটি নিয়ে নিবে। ভেরিফিকেশন কিন্তু হয়ে গেল। এভাবে আপনি টু স্টেপ ভেরিফিকেশন টা চালু করতে ফলতে পারেন ।

ইমোর ২ নং সিকিউরিটি

দুই নাম্বারে যে সিকিউরিটি অপশনটা রয়েছে সেটা হচ্ছে আপনার ফোনের সিকিউরিটি। আমি বোঝাতে চাচ্ছি কেউ যদি আপনার ফোনটি হাতে নিয়ে আপনার ইমু তে প্রবেশ করে সে যদি অনেক কিছু দেখতে চাই কিন্তু  ইজিলি সে দেখতে পারে। আবার যদি আপনার ফোনে ডিফল্ট মানে অ্যাপ লক না থাকে তাহলে কিন্তু অনেক বড় ঝামেলার ব্যাপার । সেজন্য কিন্তু ইমু নিজে এই লকটা দিয়ে দিয়েছে ।

এই যে দেখেন পাসকোড লক ,এইখানে একটা ক্লিক করবেন,

imo passcode lock

ক্লিক করার পর সেখান থেকে এনেবেল এ ক্লিক করবেন,

imo security 2023

এনেবেল এ ক্লিক করার পর চারকোড এর  একটা পাসওয়ার্ড দিয়ে পাশে টিক চিহ্নতে ক্লিক করবেন।

imo passcode security

পাসওয়ার্ড টা পুনরায় দিয়ে পাশে টিক চিহ্নতে ক্লিক করবেন।


imo passcode security update

তারপর Done এ ক্লিক করবেন।

imo new security 

Done এ ক্লিক দেওয়ার পর দেখেন এখানে সাকসেসফুল হয়ে গেছে । এখন দেখা গেল এখানে যদি অন্য কেউ প্রবেশ করতে চায় তাহলে এই পাসকোড টা দেওয়ার আগ পর্যন্ত কিন্তু সে প্রবেশ করতে পারবে না। তারমানে আপনার ফোনটাও কিন্তু সিকিউর হয়ে গেল। 

ইমোর ৩ নং সিকিউরিটি

আমি একটু ব্যাক করে চলে আসি আপনাদেরকে আরও একটা নিরাপত্তা জনিত ব্যাপার দেখায় এই যে দেখেন এটা হচ্ছে  প্রাইভেসি।

imo privacy


প্রাইভেসিতে আসার পর এস্কোল করে নিচের দিকে আসেন  এইখানে দেখেন ব্লক স্কিন শর্ট  ফর কল’স

imo block screenshot for calls


এখানে ক্লিক করার পর এইটা যদি আপনারা অ্যান করে দেন ।

imo new security 2023


তাহলে এখন যে কেউ চাইলে ও  কিন্তু আপনার ইমো তে যে কনভারর্সেশন রয়েছে এখান থেকে স্ক্রিনশট নিতে পারবে না । কেউ যদি চায় এটা কেউ রেকর্ড করে রাখবে বা ভিডিও কল টাকে কেউ রেকর্ড করে রাখবে সেটাও কিন্তু সে করে রাখতে পারবে না।

এই জিনিসগুলো নিয়ে কিন্তু আমরা অনেকে অনেক বেশি ঝামেলায় পড়েছি। এখন কিন্তু এর সমাধান ইমো নিজে দিয়ে দিয়েছে । আমার মনে হয় যে প্রত্যেক ইমো ব্যবহারকারীর এই তিনটি সেটিংস অবশ্যই করে রাখা উচিৎ। এটা আপনার ইমো কে  অনেক সিকিউর থাকবে ।

আরও জানুনঃ

যদি এই প্রসেস টি আপনার কাছে ভালো লাগে বা কাজের মনে হয় তাহলে তাহলে অবশ্যই আপনার ফেসবুকের টাইমলাইনে শেয়ার করে দিবেন আপনার ফ্রেন্ডলিস্টে থাকা অনেকেরই অনেক অনেক বেশি উপকার হতে পারে । প্রতিদিন এরকম গুরুত্বপূর্ণ পোস্ট পেতে নিয়মিত আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করুন। ধন্যবাদ।



Source link