Categories
News

পেলে প্রসঙ্গে কাজী সালাউদ্দীনের নামে ভুয়া উক্তি প্রচার


সম্প্রতি “আমি পেলেকে ঢাকায় আনতে চেয়েছিলাম চিকিৎসার জন্য – কাজী সালাহউদ্দিন” শীর্ষক দাবিতে একটি তথ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

ফেসবুকে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে।
পোস্টগুলোর আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, পেলে প্রসঙ্গে বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দীনের মন্তব্য দাবিতে ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়া উক্তিটি ভিত্তিহীন বরং কোনো ধরনের তথ্যসূত্র ছাড়াই এটি ছড়ানো হচ্ছে।

ব্রাজিলের কিংবদন্তি ফুটবলার পেলে গত ২৯ ডিসেম্বর ব্রাজিলের সাও পাওলোর আলবার্ট আইনস্টাইন হাসপাতালে মারা যান। পেলের মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়ার পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাঁর বিষয়ে নানা তথ্য শেয়ার করছেন মানুষ। তার মধ্যেই “আমি পেলেকে ঢাকায় আনতে চেয়েছিলাম চিকিৎসার জন্য।” শীর্ষক  একটি মন্তব্য বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) সভাপতি কাজী সালাউদ্দীনের মন্তব্য দাবিতে ছড়িয়ে পড়তে দেখেছে রিউমর স্ক্যানার টিম।

অনুসন্ধান যেভাবে

“আমি পেলেকে ঢাকায় আনতে চেয়েছিলাম চিকিৎসার জন্য – কাজী সালাহউদ্দিন” শীর্ষক দাবি সম্বলিত ছড়িয়ে পড়া পোস্টগুলোতে আলোচিত মন্তব্যটি অনলাইন সংবাদমাধ্যম ‘Jagonews24’ এর লোগো সম্বলিত একটি ডিজিটাল ব্যানার সম্বলিত ছবি যুক্ত রয়েছে। 

অনুসন্ধানে জানা যায়, জাগোনিউজ সাধারণত এই ধরনের ব্যানার তাদের ফেসবুক পেজে প্রকাশ করে থাকে। তবে সংবাদমাধ্যমটির ফেসবুক পেজে কাজী সালাউদ্দীনের উক্তির বিষয়ে প্রকাশিত কোনো ব্যানার খুঁজে পাওয়া যায়নি। 

তাছাড়া জাগো নিউজের ওয়েবসাইটেও এমন মন্তব্য সম্বলিত কোনো খবর খুঁজে পাওয়া যায়নি। 

পরবর্তীতে জাগো নিউজের প্রচলিত ব্যানারের সাথে ছড়িয়ে পড়া পোস্টগুলোর ব্যানার মিলিয়ে দেখে বেশ কিছু পার্থক্য পরিলক্ষিত হয়। 

জাগো নিউজের ব্যানারের লেখার ফন্ট অনেক ছোট তবে দাবিকৃত পোস্টগুলোর ব্যানারে থাকা লেখার ফন্ট অনেক বড়। তাছাড়া উক্ত ব্যানারে “কাজী সালাউদ্দীন” না লিখে ভুল বানানে লেখা রয়েছে “কাজী সালাউদ্দীনের।”

অর্থাৎ, জাগো নিউজের লোগো ব্যবহার করে ডিজিটাল প্রযুক্তির সহায়তায় এডিটকৃত ব্যানারে একটি মন্তব্য বসিয়ে মন্তব্যটি কাজী সালাউদ্দীন করেছেন দাবিতে ছড়ানো হচ্ছে। 

গুজবের সূত্রপাত কীভাবে?

অনুসন্ধানে গত ৩১ ডিসেম্বর জাতীয় দৈনিক ‘প্রথম আলো’র ওয়েবসাইটে “পেলেকে ঢাকায় আনতে চেয়েছিলাম” শিরোনামে প্রকাশিত কাজী সালাউদ্দীনের লেখা একটি কলাম খুঁজে পাওয়া যায়।

কলামে কাজী সালাউদ্দীন জানান, ২০০৬ জার্মানি বিশ্বকাপের আগে ফিফা থেকে একটা চিঠি আসে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনে (বাফুফে)। বিশ্বকাপের ড্র অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকার আমন্ত্রণ। তিনি তখন বাফুফের সহসভাপতি ছিলেন। তিনি গিয়েছিলেন অনুষ্ঠানে যোগ দিতে। সেখানে তার সাথে পেলের দেখা হয়৷ 

কাজী সালাউদ্দীন লিখেছেন, “আমি বাংলাদেশ থেকে এসেছি শুনে কিংবদন্তি বলে ওঠেন, ‘ভেরি গুড। তোমাদের দেশে ফুটবল কেমন হয়?’ আমি বললাম, ভালো। ব্রাজিল খুব জনপ্রিয় আমাদের দেশে। এরপর বলি, আপনি বাংলাদেশে আসুন। বলেন, ‘আমাকে আমন্ত্রণ জানাও আমি আসব।’ তারপর যখন ২০১১ সালে মেসিদের এনেছি ঢাকায়, পেলেকেও দাওয়াত দিই সে সময়। তাঁর আসার ইচ্ছা ছিল ঢাকায়। কিন্তু চিকিৎসকের ছাড়পত্র না পাওয়ায় আসা হয়নি। অসুস্থ থাকায় সে সময় তেমন একটা ভ্রমণ করতেন না।”

অর্থাৎ, কাজী সালাউদ্দীনের ভাষ্যমতে, তিনি পেলেকে ঢাকায় আনতে চেয়েছিলেন তবে চিকিৎসকের ছাড়পত্র না পাওয়ায় সেটি সম্ভব হয়নি।

মূলত, পেলের মৃত্যুর পর তাঁর স্মৃতিচারণ করে গত ৩১ ডিসেম্বর বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দীন পত্রিকায় একটি কলাম লিখেন। কলামে তিনি জানান, তিনি পেলেকে ঢাকায় আনতে চেয়েছিলেন তবে চিকিৎসকের ছাড়পত্র না পাওয়ায় সেটি সম্ভব হয়নি। তার এই মন্তব্যকে জাগোনিউজের এডিটকৃত ব্যানারে “আমি পেলেকে ঢাকায় আনতে চেয়েছিলাম চিকিৎসার জন্য।” শীর্ষক মন্তব্য বসিয়ে সেটি কাজী সালাউদ্দীনের মন্তব্য দাবিতে ফেসবুকে প্রচার করা হচ্ছে। 

সুতরাং, পেলে প্রসঙ্গে কাজী সালাউদ্দীনের উক্তি দাবিতে একটি উদ্ধৃতি ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে; যা সম্পূর্ণ মিথ্যা।

তথ্যসূত্র



Source link