Categories
Tips and Tricks

ইলন মাস্কের চিন্তা বাড়িয়ে স্যাটেলাইট ভিত্তিক ইন্টারনেট পরিষেবা আনছে অ্যামাজন


Amazon launch Satellite Internet Service next year

বিগত বেশ কয়েক মাস ধরে স্যাটেলাইট (satellites) সম্পর্কিত বিভিন্ন খবরাখবর আমাদের কানে আসছে। যেমন, টেক জায়ান্ট Apple ইমার্জেন্সি এসওএস (Emergency SOS) পরিষেবা চালু করেছে এবং T-Mobile ২০২৩ সালের মধ্যে স্যাটেলাইট সেলুলার পরিষেবা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। অন্যদিকে আমেরিকা ভিত্তিক স্পেসক্রাফ্ট ম্যানুফ্যাকচারিং সংস্থা SpaceX ইতিমধ্যেই তাদের ‘স্টারলিঙ্ক ইন্টারনেট সার্ভিস’ (Starlink Internet Services) নামক নেটওয়ার্ক পরিষেবাকে বিশ্বজুড়ে উপলব্ধ করার কাজে নিযুক্ত। আর এখন মনে হচ্ছে অপর একটি খ্যাতনামা বহুজাতিক মার্কিন সংস্থা, Amazon-ও স্যাটেলাইট ইন্টারনেট স্পেসে প্রবেশ করার প্রস্তুতি চালাচ্ছে। রিপোর্ট অনুযায়ী, সংস্থাটি সারা বিশ্বের মানুষকে সাশ্রয়ী মূল্যে ব্রডব্যান্ড নেটওয়ার্ক সরবরাহের উদ্দেশ্যে হয়তো আগামী বছরের শুরুর দিকে তাদের স্যাটেলাইট ভিত্তিক ইন্টারনেট পরিষেবা রোলআউট করতে পারে।

Starlink -কে টক্কর দিতে শীঘ্রই নিজস্ব স্যাটেলাইট ইন্টারনেট পরিষেবা চালু করার ঘোষণা Amazon -এর

এই বিষয়ে প্রেস কনফারেন্স চলাকালীন অ্যামাজন জানিয়েছে যে, তারা আগামী বছরের প্রারম্ভে ‘কুইপার স্যাটেলাইট ইন্টারনেট কনস্টেলেশন’ প্রজেক্টের অধীনে দুটি পরীক্ষামূলক স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ করার জন্য প্রস্তুত হচ্ছে, যা ইলন মাস্কের নেতৃত্বাধীন স্পেসএক্স সংস্থা দ্বারা লঞ্চ করা স্টারলিংক (Starlink) এবং গ্রেগ ওয়াইলারের ওয়ানওয়েবের (OneWeb) -এর মতো কমার্শিয়াল ইন্টারনেট পরিষেবা সরবরাহ করবে। যদিও এই পরিষেবা প্রাথমিক পর্যায়ে পাইলট প্রোগ্রামের অংশ হিসাবে উপলব্ধ হবে এবং পরবর্তীতে আরো বিস্তৃত হবে।

অ্যামাজনের বিবৃতি অনুসারে – ‘ইউনাইটেড লঞ্চ অ্যালায়েন্স’ ওরফে ULA -এর ভলকান সেন্টোর রকেটের মাধ্যমে পৃথিবীর কক্ষপথে উৎক্ষেপণ করা হবে কুইপারস্যাট-১ (Kuipersat-1) এবং কুইপারস্যাট-২ (Kuipersat-2) নামের প্রোটোটাইপ স্যাটেলাইট, যেগুলির সাহায্যে তারা স্যাটেলাইট নেটওয়ার্ক টেকনোলজি পরীক্ষা করতে সক্ষম হবে। তদুপরি, মহাকাশ থেকে সংগৃহিত তথ্যাদিই কমার্শিয়াল স্যাটেলাইট সিস্টেমের ডিজাইন, স্থাপনা (deployment) এবং অপারেশনাল পরিকল্পনা চূড়ান্ত করতে সাহায্য করবে, এমন ভাবনাই পোষণ করছে সংস্থাটি।

অ্যান্ডি জ্যাসি পরিচালিত সংস্থাটি তাদের ‘কুইপার স্যাটেলাইট ইন্টারনেট কনস্টেলেশন’ প্রজেক্টের অধীনে ULA -এর অংশীদারিত্বে ৪৭টি স্যাটেলাইট লঞ্চ করার পরিকল্পনা করছে এবং অ্যারোস্পেস (aerospace) কোম্পানির আরিয়ানস্পেস (Arianespace) এবং ব্লু অরিজিনের (Blue Origin) সাথে আরও ৪৫টি স্যাটেলাইট লঞ্চ সম্পন্ন করার কথা ভাবছে। আলোচ্য ৯২টি লঞ্চের সাথে, পৃথিবীর কক্ষপথে মোট ৩,২৩৬টি স্যাটেলাইট মজুত করবে অ্যামাজন, যা তাদের আসন্ন ওয়্যারলেস নেটওয়ার্ক পরিষেবা চালু করার ক্ষেত্রে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। জানা গেছে এই ৩,২৩৬টি স্যাটেলাইটের মধ্যে প্রথম দুটিকে (Kuipersat-1 এবং Kuipersat-2) ২০২৩ সালের শুরুর দিকে উৎক্ষেপণ করা হবে। ফলে দেখতে গেলে অ্যামাজনের হাতে অগাধ কাজ কিন্তু সময় খুবই কম।

অ্যামাজন সাক্ষাৎকারে আরো বলেছে যে, তাদের স্যাটেলাইটগুলি এখনও সম্পূর্ণ হয়নি এবং চলতি বছরের শেষ নাগাদ এগুলির নির্মাণকার্য শেষ হবে বলে তারা আশাবাদী। এই বিষয়ে ULA -এর মন্তব্য, “যে রকেটটি এই স্যাটেলাইটগুলি বহন করবে সেটিকেও এখনও তৈরি করা হয়নি। তবে আমরা একটি টাইমলাইন নির্ধারণ করেছি, যা অনুসরণে নভেম্বরের মধ্যে রকেট অ্যাসেম্বল এবং ডিসেম্বরে তা পরীক্ষা করার পরিকল্পনা করছি।”

ULA -এর পাশাপাশি Amazon -ও একটি বিশেষ টাইমলাইন অনুসরণ করছে। যার দরুন সংস্থাটি, ‘ফেডারেল কমিউনিকেশন কমিশন’ ওরফে FCC লাইসেন্স ভ্যালিড রাখার উদ্দেশ্যে প্রস্তাবিত সংখ্যক স্যাটেলাইটগুলির অন্তত অর্ধেককে ২০২৬ সালের মধ্যে পৃথিবীর কক্ষপথে পাঠানোর লক্ষ্য রাখছে।



Source link

Leave a Reply