Categories
Tips and Tricks

পৃথিবীর মধ্যে অন্য পৃথিবীর স্বাদ পেতে চান? Meta হাজির Quest Pro নিয়ে


Meta Quest Pro Mixed Reality VR launched
Meta Quest Pro Mixed Reality VR launched

অক্যুলাস কোয়েস্ট টু (Oculus Quest 2)-এর পর এবার সম্প্রতি ‘কোয়েস্ট প্রো’ (Quest Pro) নামের নতুন মিক্সড রিয়্যালিটি হেডসেট লঞ্চ করল সোশ্যাল মিডিয়া কোম্পানি Meta। এই হেডসেটটি লঞ্চ করে মার্ক জুকারবার্গের কোম্পানিটি এক্সটেন্ডেড রিয়্যালিটি কম্পিউটিং ডিভাইসের হাই-এন্ড মার্কেটে পা রাখলো। নবাগত ডিভাইসটিকে প্রিমিয়াম সেগমেন্টের অধীনে এনেছে সংস্থাটি। মূলত একটি প্রোডাক্টিভিটি ডিভাইস হিসেবে Quest Pro লঞ্চ করেছে Meta। সংস্থার মতে, এর সুবাদে ডিজাইনার, স্থপতি ও অন্যান্য সৃজনশীল পেশাজীবীরা উপকৃত হবেন। উল্লেখ্য, Quest Pro-এর প্রিভিউতে ট্রাইব এক্সআর (Tribe XR)-এর মতো অ্যাপ এবং ভার্চুয়াল ট্রেনিং এনভায়রনমেন্টে এটি কীভাবে কাজ করবে, তা বেশ ভালোভাবে দর্শিয়েছে সংস্থাটি।

Quest Pro-এর দাম রাখা হয়েছে লক্ষাধিক টাকা

আপনাদেরকে জানিয়ে রাখি, মেটার অ্যানুয়াল কানেক্ট কনফারেন্সে এই অত্যাধুনিক ডিভাইসটিকে লঞ্চ করা হয়েছে। সংস্থার তরফ থেকে জানা গিয়েছে যে, আগামী ২৫ অক্টোবর থেকে এটি বাজারে পাওয়া যাবে। নতুন এই মিক্সড রিয়্যালিটি হেডসেটের দাম রাখা হয়েছে ১,৫০০ ডলার (প্রায় ১,২৩,৪৮০ টাকা), যা পূর্বের হেডসেটের প্রায় ৪ গুণ। এই হেডসেটের সাহায্যে ফুল-কালার ভিউতে ভার্চুয়াল ক্রিয়েশনসের সাথে ইন্ট্যার‌্যাক্ট করতে এবং সংযুক্ত থাকতে পারবেন ইউজাররা।

মিক্সড রিয়্যালিটির ওপর বহুদিন ধরেই মনোনিবেশ করেছে মার্ক জুকারবার্গের কোম্পানি

প্রসঙ্গত বলে রাখি, বর্তমান সময়ে টেক দুনিয়ার সর্বাধিক চর্চিত বিষয়গুলির মধ্যে অন্যতম একটি হল মেটাভার্স (Metaverse)। আদতে এটি পৃথিবীর মধ্যেই অন্য আর একটি পৃথিবী। মেটা দীর্ঘদিন ধরেই এই ভার্চুয়াল জগতকে আরও ভালোভাবে প্রত্যক্ষ করার জন্য নিত্যনতুন পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে চলেছে। আর ইতিমধ্যেই এই ভার্চুয়াল দুনিয়াকে কেন্দ্র করে অনেক চমকপ্রদ ডিভাইস বাজারে এসেছে। জুকারবার্গের কথায়, মেটাভার্সই অদূর ভবিষ্যতে ইন্টারনেটের উত্তরসূরী হতে চলেছে। সেক্ষেত্রে সম্প্রতি লঞ্চ হওয়া হেডসেটটি যে তার জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ, সেকথা বলাই বাহুল্য।

কোম্পানিটি মেটাভার্সের জন্য কোটি কোটি টাকা বিনিয়োগ করছে 

এই প্রসঙ্গে জানিয়ে রাখি, গত বছরের জুলাই থেকে ভার্চুয়াল রিয়্যালিটি (VR) ও অগমেন্টেড রিয়্যালিটিতে (AR) লক্ষ লক্ষ ডলার বিনিয়োগ করেছে প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান মেটা। অত্যাধুনিক টেকনোলজিকে হাতিয়ার করে আগামী দিনে সাধারণ মানুষকে ব্যাপকভাবে চমকে দিতে মার্ক জুকারবার্গ যে বেশ ভালোরকম প্রস্তুতি নিচ্ছেন, সেকথা নিঃসন্দেহে অনস্বীকার্য। মেটাভার্সকে জনসাধারণের কাছে আরও সহজে উপলব্ধ করে তুলতে কোম্পানিটি ২০২১ সালে এই প্রকল্পে ১০.২ বিলিয়ন ডলার এবং এ বছর ৬ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করেছে।

আগামী বছর লঞ্চ হতে পারে Meta-র আসন্ন VR হেডসেট Project Cambria

প্রসঙ্গত জানিয়ে রাখি, Metaverse নামক এই ভার্চুয়াল জগতকে আরও ভালোভাবে প্রত্যক্ষ করার লক্ষ্যে Meta আগামী বছর একটি বিশেষ ডিভাইস নিয়ে আসতে চলেছে। মাসছয়েক আগে জুকারবার্গের সেই হাই-এন্ড ভার্চুয়াল রিয়্যালিটি হেডসেট প্রজেক্ট ক্যাম্ব্রিয়া (Project Cambria)-র প্রথম ঝলক প্রকাশ্যে এসেছিল। উল্লেখ্য যে, যদিও প্রজেক্ট ক্যাম্ব্রিয়া আসলে একটি ভিআর হেডসেট, তবে এটি মিক্সড-রিয়্যালিটির (AR/VR হাইব্রিড) ওপর ফোকাস করেও কাজ করতে সক্ষম। আসন্ন এই হেডসেটটি হাই রেজোলিউশন, ফুল কালার পাসথ্রু সাপোর্টসহ আসবে। ডিভাইসটিকে ভার্চুয়াল অবজেক্টের সাহায্যে কানেক্ট করা যাবে। আবার, অগমেন্টেড রিয়্যালিটি ব্যবহার করে ইউজাররা ক্লাউড ওয়ার্কস্টেশনগুলিতেও কাজ করতে পারবেন।



Source link

Leave a Reply