Categories
টেকনোলজি

সমাজকর্ম ১ম পত্র : ৭ম অধ্যায় MCQ (PDF)


সমাজকর্ম ১ম পত্র ৭ম অধ্যায় mcq : নীতি শব্দটি আধুনিক বিশ্বের সমাজব্যবস্থায় কাঙ্খিত উন্নয়ন ও সমাজকর্মের সাথে ঘনিষ্ঠ সম্পর্কে সম্পর্কিত একটি প্রত্যয়। সামগ্রিক কল্যাণের ক্ষেত্রে সামাজিক উন্নয়নের একটি গুরুত্বপূর্ণ অনুশীলন হিসেবে সমাজসেবা কার্যক্রমের স্বরূপ, প্রকৃতি, পরিচালনা ও প্রশাসন ব্যবস্থাপনার দিকনির্দেশনা দেয় সামাজিক নীতি।

সাধারণ অর্থে নীতি হলো কোনো লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য অর্জনের পথনির্দেশিকা। কোনো সমাজে সুশৃঙ্খল ও অর্থবহ সমাজসেবামূলক ব্যবস্থা সামাজিক নীতি কাঠামোর আওতাতেই গড়ে ওঠে। সমাজসেবা ছাড়াও সামাজিক নীতির আরো উল্লেখযোগ্য পরিচয়বাহী বিষয় হলো শাসনতন্ত্র ও সামাজিক আইন এবং আন্তর্জাতিক সাহায্য-সহযোগিতার চুক্তিপত্র।

মূলত সমাজ উন্নয়ন ও সামাজিক সমস্যা দূরীকরণে যে নীতি প্রণয়ন করা হয় তাই সামাজিক নীতি। একটি সমাজ বা রাষ্ট্রব্যবস্থায় বিভিন্ন ধরনের নীতি প্রণীত হয়ে থাকে। যেমন- শিক্ষানীতি, স্বাস্থ্যনীতি, শিশুনীতি, জনসংখ্যানীতি, নারী উন্নয়ন নীতি, শ্রমনীতি প্রভৃতি।

সমাজকর্ম ১ম পত্র ৭ম অধ্যায় mcq

১. সমাজের কল্যাণে বিভিন্ন সমাজকল্যাণমূলক সেবা প্রদান বা সামাজিক সমস্যার সমাধান বা ব্যক্তি ও গোষ্ঠী জীবনের স্বাভাবিক জীবনযাত্রার নিশ্চয়তা বিধানে যে সকল নীতি প্রণয়ন করা হয় তাকে কী বলে?
ক. ধর্মীয় নীতি
খ. অর্থনৈতিক নীতি
● সামাজিক নীতি
ঘ. রাজনৈতিক নীতি

২. ‘সামাজিক নীতি হলো সামাজিক সমস্যা মোকাবিলার একটি যৌথ প্রয়াস।’ উক্তিটি কার?
● Bruce S Jansson
খ. A.E. Ben
গ. Wilbert E Moore
ঘ. Richard M Titmass

৩. সামাজিক নীতির মূল্য উদ্দেশ্য কোনটি?
ক. জনগণের সর্বাধিক আর্থসামাজিক কল্যাণ সাধন
খ. দুর্বল ও অসহায় শ্রেণির স্বার্থ সংরক্ষণ .
গ. সীমিত সম্পদের অপচয় রোধ
● পরিবর্তিত পরিস্থিতির সাথে সামঞ্জস্য বিধানে জনগণকে সহায়তা করা

৪. সামাজিক নীতিকে পথনির্দেশিকা বলা হয় কেন?
● সামাজিক উন্নয়নের পথ নির্দেশ করে বলে
খ. সমাজকে পরিচালিত করে বলে
গ. মানুষের জীবনে সমৃদ্ধি আনয়ন করে বলে
ঘ. সিদ্ধান্ত গ্রহণে সাহায্য করে বলে

৫. নিচের কোনটি সামাজিক নীতি প্রণয়ন প্রক্রিয়ার ধারাবাহিক অংশ বিশেষ?
ক. বিজ্ঞানভিত্তিক সিদ্ধান্ত গ্রহণ → কার্যকরী কমিটি গঠন → নীতির অনুশীলন
● নীতির অনুভূত প্রয়োজন নির্ধারণ → বিজ্ঞানভিত্তিক সিদ্ধান্ত গ্রহণ → কার্যকরী কমিটি গঠন
গ. কার্যকরী কমিটি গঠন → বিজ্ঞানভিত্তিক সিদ্ধান্ত গ্রহণ → নীতি অনুশীলন
ঘ. নীতি প্রণয়নের সিদ্ধান্ত গ্রহণ নীতির প্রচার ও জনসমর্থন → নীতির বিশ্লেষণ

৬. সামাজিক নীতি প্রণয়নের চূড়ান্ত ধাপ কোনটি?
● নীতির চূড়ান্ত অনুমোদন ও বাস্তবায়ন
খ. খসড়া নীতি প্রস্তুত করা ও বাস্তবায়ন
গ. নীতি বিশ্লেষণ ও কমিটি গঠন
ঘ. কমিটি গঠন ও বাস্তবায়ন

৭. নীতি প্রণয়নে কমিটি গঠন করা হয় কেন?
● সার্বিক দায়িত্ব পালনের জন্যে
খ. নীতি অনুমোদনের জন্যে
গ. পরামর্শ গ্রহণের জন্যে
ঘ. কর্মসূচি বাস্তবায়নের জন্যে

৮. Richard M Titmass-এর মতে, সামাজিক নীতির উদ্দেশ্য হলো—
i. নাগরিকদের কল্যাণ নিশ্চিতকরণ
ii. অর্থনৈতিক বিষয়ের সাথে অ-অর্থনৈতিক বিষয় অন্তর্ভুক্ত করা
iii. ধনী ও দরিদ্রের মাঝে সম্পদের পুনর্বণ্টন

নিচের কোনটি সঠিক
ক. i ও ii
খ. i ও iii
গ. ii ও iii
● i, ii ও iii

৯. সামাজিক নীতির জন্য অনুসরণ করা হয়-
i. একমুখী প্রক্রিয়া
ii. দ্বিমুখী প্রক্রিয়া
iii. ধারাবাহিক প্রক্রিয়া

নিচের কোনটি সঠিক
ক. i ও ii
● ii ও iii
গ. i ও iii
ঘ. i, ii ও iii

১০. সামাজিক নীতি-
i. সমাজসেবামূলক কর্মকাণ্ডের ক্ষেত্র তৈরি করে
ii. মানুষের প্রতিভার সুষ্ঠু বিকাশে সহায়তা করে
iii. সকলের মৌলিক অধিকার পূরণের নিশ্চয়তা বিধান করে

নিচের কোনটি সঠিক
ক. i ও ii
খ. ii ও iii
● i ও iii
ঘ. i, ii ও iii

১১. সামাজিক নীতির উদ্দেশ্য হচ্ছে—
i. সকলের কল্যাণ সাধন
ii. দারিদ্র্য নিরসন
iii. গণতন্ত্র সংরক্ষণ

নিচের কোনটি সঠিক
ক. i ও ii
খ. i ও iii
গ. ii ও iii
● i, ii ও iii

১২. ‘ক’ দেশটির সরকার সম্পদ ও প্রাপ্ত সুবিধার ন্যায় ভিত্তিক বণ্টনের লক্ষ্যে সামাজিক নীতি প্রণয়ন করেছে। এর ফলে ‘ক’ দেশটিতে—
i. সাম্য ও সমতা প্রতিষ্ঠিত হবে
ii. অর্থনৈতিক বৈষম্য বৃদ্ধি পাবে
iii: অধিকারহীনদের অধিকার প্রতিষ্ঠিত হবে

নিচের কোনটি সঠিক
ক. i ও ii
● i ও iii
গ. ii ও iii
ঘ. i, ii ও iii

১৩. সামাজিক নীতি প্রণয়নের মাধ্যমে—
i. জনগণের জীবনমান বজায় রাখা হয়।
ii. সমাজের জনগণের নিরাপত্তা লঙ্ঘিত হয়
iii. সমাজে সম্পদের সুষ্ঠু বণ্টন করা হয়

নিচের কোনটি সঠিক
ক. i ও ii
● i ও iii
গ. ii ও iii
ঘ. i, ii ও iii

১৪. শিশুদের জন্য কত বছর প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষা চালু করা হবে?
● এক বছর
খ. দুই বছর
গ. তিন বছর
ঘ. চার বছর

১৫. কার নেতৃত্বে বাংলাদেশে প্রথম শিক্ষানীতি প্রণীত হয়?
● ড. কুদরত-এ খুদা
খ. খুদাদাত খান
গ. মোঃ শামসুল হক
ঘ. অধ্যাপক আবুল ফজল

১৬. উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা কী?
ক. প্রাথমিক শিক্ষার বিপরীত অবস্থা
খ. মাধ্যমিক শিক্ষার পরিপূরক অবস্থা
● প্রাথমিক শিক্ষার পরিপূরক অবস্থা
ঘ. মাধ্যমিক শিক্ষার বিপরীত অবস্থা

১৭. নতুন শিক্ষা কাঠামোয় কোন শ্রেণি পর্যন্ত মাধ্যমিক শিক্ষা স্তর হিসেবে বিবেচিত হবে?
ক. ৫ম-৮ম
খ. ৮ম-৯ম
● ৯ম-দ্বাদশ
ঘ. ৮ম-দ্বাদশ

১৮. বর্তমান বাংলাদেশের শিক্ষার্থীরা ৬ষ্ঠ শ্রেণি থেকে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত বাধ্যতামূলকভাবে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি নামক বিষয়টি অধ্যয়ন করছে। এখানে কোন শিক্ষানীতির প্রতিফলন ঘটেছে?
ক. ১৯৭৪
খ. ১৯৮৪
গ. ২০০১
● ২০১০

১৯. বর্তমানে শিক্ষকেরা শ্রেণিতে পাঠদানকালে সব ধর্মের শিক্ষার্থীদের পরস্পরকে বিপদ আপদে সহযোগিতা প্রদানের শিক্ষা দিয়ে থাকেন। এর ফলে নিচের কোনটি হতে পারে?
ক. মানবাধিকার প্রতিষ্ঠা
খ.নারী-পুরুষ বৈষম্য দূরীভূত
● অসাম্প্রদায়িক বিশ্ব ভ্রাতৃত্ব সৃষ্টি
ঘ. সাংস্কৃতিক বিকাশ

২০. শিল্প, বাণিজ্য ও যাবতীয় কর্মকাণ্ড পরিচালনার জন্য সেবামূলক প্রতিষ্ঠানসমূহের প্রয়োজনীয় জ্ঞানের শাখাসমূহের সমন্বিত ব্যবস্থাকে কী বলে?
ক. তথ্যপ্রযুক্তি শিক্ষা
● ব্যবসায় শিক্ষা
খ. বিজ্ঞান
গ. নৈতিক শিক্ষা

২১. শিশুদের প্রস্তুতিমূলক শিক্ষার জন্য শিক্ষানীতি ২০১০ এ কোন শিক্ষা স্তরের কথা বলা হয়েছে?
ক. প্রাথমিক
● প্রাক-প্রাথমিক
গ. ধর্মীয় শিক্ষা
ঘ. কিন্ডার গার্টেন

২২. বাংলাদেশে অবৈতনিক বাধ্যতামূলক শিক্ষা প্রচলিত রয়েছে কোন স্তরে?
ক. প্রাক-প্রাথমিক
● প্রাথমিক
গ. মাধ্যমিক
ঘ. উচ্চ মাধ্যমিক

২৩. আমাদের দেশে কার নেতৃত্বে সর্বশেষ শিক্ষানীতি প্রণয়ন করা হয়?
ক. অধ্যাপক জাফর ইকবাল
খ. অধ্যাপক ফায়েজ
● অধ্যাপক কবির চৌধুরী
ঘ. অধ্যাপক আমিনুল ইসলাম

২৪. শিক্ষানীতির মূল উদ্দেশ্য হলো—
i. মানবতার বিকাশ, জনমুখী উন্নয়ন ও প্রগতিকে নেতৃত্বদানকারী দক্ষ জনগোষ্ঠী তৈরি
ii. মননশীল, যুক্তিবাদী, যুক্তিবাদী, নীতিবান এবং অসাম্প্রদায়িক নাগরিক গড়ে তোলা
iii. শিক্ষার মাধ্যমে সমাজজীবনে গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ জাগ্রত করা

নিচের কোনটি সঠিক
● i ও ii
খ. i ও iii
গ. ii ও iii
ঘ. i, ii ও iii

২৫. বাংলাদেশে শিক্ষানীতি ২০১০ এর লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য হচ্ছে—
i. দেশের স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব ও অখণ্ডতা রক্ষার প্রতি শিক্ষার্থীদের সচেতন করা
ii. জাতীয় ইতিহাস, ঐতিহ্যের ধারা বিকশিত করে প্রজন্ম পরম্পরায় তা সঞ্চালনের ব্যবস্থা করা
iii. দেশের সকল ক্ষুদ্র জাতিসত্তার সংস্কৃতি ও ভাষার বিকাশ ঘটানো

নিচের কোনটি সঠিক
ক. i ও ii
খ. i ও iii
গ. ii ও iii
● i, ii ও iii

২৬. আমাদের দেশে মাদ্রাসা শিক্ষার উদ্দেশ্য হচ্ছে-
i. ইসলাম ধর্ম অনুধাবনে সাহায্য করা
ii. সর্বশক্তিমান আল্লাহতাআলা ও তাঁর রাসুল (স)-এর প্রতি অটল বিশ্বাস গড়ে তোলা
iii. শিক্ষার্থীদের চরিত্র গঠনে সহায়তা করা

নিচের কোনটি সঠিক
ক. i ও ii
খ. i ও iii
গ. ii ও iii
● i, ii ও iii

২৭. একটি দেশের শিক্ষাব্যবস্থা যার ওপর ভিত্তি করে গড়ে উঠবে—
i. দেশের বিরাজমান আর্থ-সামাজিক রাজনৈতিক অবস্থা
ii. দীর্ঘদিনের লালিত সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য
iii. নৈতিক ও মানবিক মূল্যবোধ

নিচের কোনটি সঠিক
ক. i ও ii
খ. i ও iii
গ. ii ও iii
● i, ii ও iii

২৮. জনসংখ্যা নীতি বাস্তবায়নে গ্রহীতামুখী সেবায় কাদের তথ্য ও সেবা প্রাপ্যতা নিশ্চিত করতে হবে?
ক. নব-দম্পতির
খ. কিশোর-কিশোরীর
গ. শিশু-মহিলাদের
● ঝুঁকিপূর্ণ জনগোষ্ঠীর

২৯. বর্তমানে দক্ষিণ কোরিয়ায় কত সংখ্যক লাইসেন্সধারী সমাজকর্মী রয়েছে?
ক. এক লাখ
● দুই লাখ
গ. তিন লাখ
ঘ. চার লাখ

৩০. জনসংখ্যা নীতি অনুযায়ী পরিবার-পরিকল্পনা পদ্ধতি গ্রহণে গ্রহীতা বিভাজন করা কোন কার্যক্রমের আওতাভুক্ত?
ক. নগর স্বাস্থ্যসেবা
● এলাকাভিত্তিক পরিকল্পনা ও কর্মকৌশল
গ. আচরণ পরিবর্তনে যোগাযোগ
ঘ. বেসরকারি ও ব্যক্তিখাতের অংশগ্রহণ

৩১. জনসংখ্যা নীতি অনুযায়ী বেসরকারি ও ব্যক্তিখাত প্রতিষ্ঠানের দ্বৈততা পরিহার করার লক্ষ্যে পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তর কী হিসেবে কাজ করে?
● ফোকাল পয়েন্ট
খ. গণমাধ্যম
গ. সেবামূলক প্রতিষ্ঠান
ঘ. তথ্য সরবরাহকারী

৩২. জনসংখ্যা নীতি অনুযায়ী জনসংখ্যা ও পরিবেশকে সর্বদা কোনটির সাথে বিবেচনায় রেখে কর্মকৌশল গ্রহণ করতে হবে?
● সামাজিক নিরাপত্তা
খ. জনগণের অংশগ্রহণ
গ. আইনগত ব্যবস্থা
ঘ. কর্মপরিকল্পনা

৩৩. বর্তমান বাংলাদেশে শিশু ও মাতৃমৃত্যু হার প্রায় শূন্যের কোঠায় পৌঁছেছে। এখানে কোন নীতির প্রতিফলন ঘটেছে?
ক. নারী উন্নয়ন নীতি
খ. শিশু নীতি
● জনসংখ্যা নীতি
ঘ. শিক্ষানীতি

৩৪. জনসংখ্যা নীতি বাস্তবায়নের গ্রহীতামুখী সেবার মুখ্য উদ্দেশ্য—
i. কমিউনিটি ক্লিনিকের মাধ্যমে সেবা নিশ্চিত করা
ii. ই-প্রজনন সেবা প্রচলন করা
iii. এইচআইভি/এইডস বিষয়ে সচেতন করা

নিচের কোনটি সঠিক
● i ও ii
খ. ii ও iii
গ. i ও iii
ঘ. i, ii ও iii

৩৫. জনসংখ্যা নীতি বাস্তবায়নে মুখ্য কৌশল–
i. গ্রহীতামুখী সেবা
ii. কিশোর-কিশোরীর কল্যাণ
iii. শিক্ষা ও প্রশিক্ষণ

নিচের কোনটি সঠিক
● i ও ii
খ. ii ও iii
গ. i ও iii
ঘ. i, ii ও iii

৩৬. জনসংখ্যা নীতি অনুযায়ী কিশোর-কিশোরী কল্যাণ কার্যক্রমে অবিবাহিত মহিলাদের –
i. কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করা হয়
ii. গ্রহীতা বিভাজন করা হয়
iii. ঋণ সুবিধা দেওয়া হয়

নিচের কোনটি সঠিক
ক. i ও ii
খ. ii ও iii
● i ও iii
ঘ. i, ii ও iii

৩৭. জনসংখ্যা ও পরিবেশ কার্যক্রমের আওতায় রয়েছে—
i. সামাজিক বনায়ন কর্মসূচি শক্তিশালী করা
ii. একাডেমিক প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা
iii. দূষণমুক্ত পরিবেশ সৃষ্টি করা

নিচের কোনটি সঠিক
ক. i ও ii
খ. i ও iii
● ii ও iii
ঘ. i, ii ও iii

৩৮. সংবিধানের কত নং অনুচ্ছেদে রাষ্ট্র ও গণজীবনের সকল স্তরে নারী ও পুরুষের সমানাধিকারের উল্লেখ আছে?
ক. ২৭
খ. ২৯
● ২৮(২)
ঘ. ২৮(৩)

৩৯. বাংলাদেশের প্রথম নারী উন্নয়ন নীতির লক্ষ্য ছিল?
ক. নারীদের অর্থনৈতিক অবস্থার উন্নয়ন করা
খ. নারীদের রক্ষণশীল করে তোলা
● অবহেলিত নারীদের ভাগ্যের উন্নয়ন ঘটানো
ঘ. নারীদের মানসিকতার উন্নয়ন ঘটানো

৪০. বাংলাদেশে সর্বশেষ কত সালে জাতীয় নারী উন্নয়ন নীতি প্রণীত হয়?
ক. ২০০৮
খ. ২০০৯
গ. ২০১০
● ২০১১

৪১. নারী ও মেয়ে শিশুর প্রতি বৈষম্য দূরীকরণে করণীয় কী?
● নারীর অধিকার প্রতিষ্ঠা
খ. নারীকে পারিবারিক শৃঙ্খলমুক্ত করা
গ. নারীকে অভিশাপমুক্ত করা
ঘ. নারীকে সাহসী ও কর্মঠ করে তোলা

৪২. জাতীয় নারী উন্নয়ন নীতি বাস্তবায়ন করার জন্য বন্ধ করতে হবে
i. বাল্যবিবাহ
ii. যৌতুকের জন্য নিপীড়ন
iii. এসিড সন্ত্রাস ও যৌন হয়রানি

নিচের কোনটি সঠিক
ক. i ও ii
খ. i ও iii
গ. ii ও iii
● i, ii ও iii

৪৩. নারীর দারিদ্র্য দূরীকরণে–
i. নারীদের উৎপাদনশীল কর্মে সম্পৃক্ত করতে হবে
ii. নারীদের মৌলিক চাহিদা পূরণে জাতীয় বাজেটে বরাদ্দ বৃদ্ধি করতে হবে
iii. নারীদেরকে অর্থনৈতিক মূল ধারায় সম্পৃক্ত করতে হবে

নিচের কোনটি সঠিক
ক. i ও ii
খ. i ও iii
গ. ii ও iii
● i, ii ও iii

নিচের উদ্দীপকটি পড়ো এবং ৪৪ ও ৪৫ নং প্রশ্নের উত্তর দাও:
রহিমা বেগম একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কাজ করেন। তার মাসিক আয় স্বামীর মাসিক আয়ের সমান। তবুও নানা কারণে তিনি নানা বৈষম্যের শিকার হন।

৪৪. কীসের মাধ্যমে রহিমা বেগমের প্রতি সকল বৈষম্য দূর করা যায়?
ক. গণসচেতনতা
খ. উন্নত নারী নীতির
● সামাজিক নীতির
ঘ নারীকে শিক্ষিত করে

৪৫. অধিকার বঞ্চিত নারীদের রক্ষায় সরকারের উচিত-
i. সকল ক্ষেত্রে নারীর নিরাপত্তা করা
ii. নারীর ক্ষমতায়ন নিশ্চিত করা
iii. নারীর অর্থনৈতিক স্বাধীনতা নিশ্চিত করা

নিচের কোনটি সঠিক
ক. i ও ii
খ. i ও iii
গ. ii ও iii
● i, ii ও iii

৪৬. জাতীয় শিশু নীতি অনুযায়ী কোন সময়কে কিশোর- কিশোরীর বয়ঃসন্ধিকালীন সময় হিসেবে ধরা হয়?
ক. ১০ থেকে ১২
খ. ১০ থেকে ১৪
গ. ১০ থেকে ১৬
● ১০ থেকে ১৮

৪৭. জাতিসংঘ শিশু অধিকার সনদের আলোকে বাংলাদেশে কত সালে জাতীয় শিশু নীতি প্রণয়ন করা হয়?
ক. ২০০০ সালে
খ. ২০০৩ সালে
● ২০০৪ সালে
ঘ. ২০০৫ সালে

৪৮. জাতীয় শিশু নীতি ২০১১ অনুযায়ী কিশোর- কিশোরী বলতে কোন বয়সীদের বোঝানো হয়েছে?
ক. ১২ বছর থেকে ১৫ বছরের কম বয়সী
খ. ১৩ বছর থেকে ১৭ বছরের কম বয়সী
● ১৪ বছর থেকে ১৮ বছরের কম বয়সী
ঘ. ১৫ বছর থেকে ২০ বছরের কম বয়সী

৪৯. জাতীয় শিশুনীতি ২০১১ অনুযায়ী শিশু বলতে কাদের বোঝানো হয়েছে?
ক. ১৩ বছর বয়সী শিশু
খ. ১৪ বছর বয়সী শিশু
● ১৬ বছর বয়সী শিশু
ঘ. ১৮ বছর বয়সী শিশু

৫০. জাতীয় শিশু নীতি অনুযায়ী অনূর্ধ্ব কত বছরের শিশুদের Low Birth weight হ্রাস করতে হবে?
ক. এক বছর
● দুই বছর
গ. তিন বছর
ঘ. চার বছর

Answer Sheet


►► আরো দেখো: সমাজকর্ম সকল অধ্যায়ের MCQ উত্তর


শিক্ষার্থীরা এখানে উচ্চ মাধ্যমিকের সমাজকর্ম ১ম পত্র ৭ম অধ্যায় mcq থেকে ৫০টি বহুনির্বাচনী প্রশ্ন তুলে ধরা হয়েছে। তবে আমাদের মূল পিডিএফ হ্যান্ডনোটে ১০০টি গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্নের উত্তর রয়েছে।

উপরে দেয়া Answer Sheet বাটনে ক্লিক করে গুরুত্বপূর্ণ এ MCQ গুলো ডাউনলোড করে নাও। ডাউনলোড করতে অসুবিধা হলে আমাদের ফেসবুক পেজে ইনবক্স করো। শিক্ষার্থীরা অন্যান্য বিষয়ের নোট ও সাজেশান্স পেতে আমাদের YouTube চ্যানেলটি SUBSCRIBE করতে পারো এই লিংক থেকে।



Source link

Leave a Reply