Categories
Tips and Tricks

প্রোডাক্টিভ আইডিয়া পাবার ৭ টি অসাম ব্রেইনস্ট্রমিং টেকনিক | Techtunes


আসসালামু আলাইকুম টেকটিউনস কমিউনিটি, কেমন আছেন সবাই? আশা করছি ভাল আছেন। বরাবরেই মত আজকেও চলে এসেছি নতুন টিউন নিয়ে।

আমরা যখন কোন প্রজেক্টে কাজ করি তখন এর সফলতা এবং অগ্রগতি নির্ভর করে সঠিক এবং কার্যকর আইডিয়ার উপর। কিন্তু সঠিক সময়ে সঠিক আইডিয়া কিভাবে আসবে? সঠিক সময় সঠিক আইডিয়া আসার অন্যতম পথ হচ্ছে ব্রেনস্টর্মিং করা। একমাত্র কাঠামোগত ব্রেনস্টর্মিং এর মাধ্যমে সঠিক আইডিয়া বা ধারণা পাওয়া সম্ভব।

আপনি যখনই নতুন কোন প্রজেক্টের জন্য ব্রেনস্টর্মিং প্রক্রিয়ায় যাবেন তখন অবশ্যই সেখানে, আপনার বৈজ্ঞানিক কর্মপন্থা অবলম্বন করা উচিৎ।

তো আজকের এই টিউনে আমরা, সেরা কাঠামোগত আইডিয়া জেনারেট করার পদ্ধতি গুলো দেখব সেগুলো আপনি নিজে এবং টিম অনুসরণ করতে পারেন। আপনি আপনার প্রজেক্টের ধরন অনুযায়ী নির্দিষ্ট একটিও গ্রহণ করতে পারেন অথবা কয়েকটা এক সাথেও ব্যবহার করতে পারেন।

১. মাইন্ড ম্যাপিং

একটি নতুন ওয়েবসাইট, মোবাইল অ্যাপ, ব্লগ কন্টেন্ট ইত্যাদি তৈরি করতে মাইন্ড ম্যাপিং একটি উপযুক্ত ব্রেনস্টর্মিং টেকনিক। আপনি এর মাধ্যমে জরুরি সব আইডিয়া এক সাথে করতে পারেন, যাতে করে কোন ফিচার বাদ না যায়।

আপনি Creately এর মত প্ল্যাটফর্ম গুলো ব্যবহার করে প্রফেশনাল লুকের মাইন্ড ম্যাপ অনলাইনে আঁকতে পারেন। যেমন আপনি একটি ওয়েবসাইট ডেভেলপ করবেন, সেক্ষেত্রে আপনি Creately ব্যবহার করে পুরো ওয়েবসাইটের একটা ডিজাইন কল্পনা করে ফেলতে পারেন। কোথায় লগো থাকবে, ম্যানু, ফুটারে কী থাকবে ইত্যাদি সাজিয়ে লিখে ফেলতে পারেন। সম্ভাব্য ডিজাইন তৈরির পর সেটা নিয়ে টিম মেম্বারদের সাথে আলোচনা করতে পারেন।

২. ব্রেন-রাইটিং

নাম গোপন রেখে নতুন আইডিয়া দেয়াকে বলা হয় ব্রেন-রাইটিং। টিমে এমন অনেক মেম্বার থাকে তারা সমালোচনার ভয়ে সবার সামনে তাদের আইডিয়ার কথা বলতে চায় না। মূলত তাদের জন্য ব্রেন-রাইটিং ট্যাকনিকটি কাজ করবে। এর মাধ্যমে নিশ্চিন্তে সব টিম মেম্বার আইডিয়া জেনারেশনে কন্ট্রিবিউট করতে পারে।

আইডিয়া নিতে আপনি Lucidchart এর মত অ্যাপ গুলো ব্যবহার করতে পারেন। ধরুন আপনি একটি অ্যাপকে আরও ইম্প্রুভ করবেন, সেক্ষেত্রে আপনার UI/UX টিম মেম্বারদের বলতে পারেন তারা যেন এখানে স্টিকি নোটে সবার আইডিয়া শেয়ার করে।

শেয়ারের মত সব গুলো আইডিয়া আবার টিম মেম্বারদের সাথে শেয়ার করে সেগুলোকে আরও উন্নত করতে পারেন। কয়েক রাউন্ডে আপনি এই কাজগুলো করতে পারেন। সেরা আইডিয়া পেতে অবশ্যই তিনটা রাউন্ডে আইডিয়া কালেক্ট করুন। আর পুরো প্রক্রিয়াটিতে আইডিয়া জেনাররেটদের পরিচয় অবশ্যই গোপন রাখুন।

৩. রোল স্ট্রমিং

যখন প্রায় সকল টিম মেম্বারদের থেকে একই ধরনের আইডিয়া আসে তখন রোল স্ট্রমিং বা ফিগার স্ট্রমিং এর প্রয়োজন পড়ে। কারণ ফ্রেশ আইডিয়ার জন্য ফ্রেশ পারসোনালিটি দরকার।

যেহেতু আপনি চাইলেও প্রজেক্ট মেম্বার পরিবর্তন করতে পারবেন না তবে কিছু পদক্ষেপ এর মাধ্যমে তাদের থেকে নতুন আইডিয়া বের করে আনা সম্ভব। রোল স্ট্রমিং বা ফিগার স্ট্রমিং এই টেকনিক গুলোর মধ্যে অন্যতম।

আপনি যখন কোন ক্লাইন্ট, কাস্টমার, বা ইউজারের সমস্যা সমাধান করতে চাইবেন তখন এই টেকনিক দারুণ কাজ করতে পারে। যেমন ধরুন কোন অ্যাপ এর ইউজার এনগেজমেন্ট বাড়াতে চান সেক্ষেত্রে আপনি Mural এর মত টুল দিয়ে রোল স্ট্রমিং করতে পারেন। কাস্টমার হিসেবে আপনি কী কী সমস্যা ফেস করছেন সেটা তুলে ধরুন এবং সমাধানের চেষ্টা করুন।

আপনার টিম মেম্বারকে বলুন তারা যেন কাস্টমারদের ভিউ পয়েন্ট থেকে অ্যাপ এর ফিডব্যাক দেয় এবং সমস্যা গুলো তুলে ধরে। সর্বশেষ এই সমস্যা গুলো ক্রস ম্যাচিং করে আপনি অ্যাপটি ঠিক করুন।

৪. স্টারব্রাস্টিং

কাস্টমারদের জন্য কোন প্রজেক্টে কাজ করলে তার আইডিয়া জেনারেশন এবং সমস্যা সমাধানে স্টারব্রাস্টিং গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে। যদি ইতিমধ্যে টিম কোন আইডিয়াতে পৌঁছে যায় তারপরেও স্টারব্রাস্টিং এর মাধ্যমে এর বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে সাহায্য করতে পারে।

যেমন ধরুন আপনি কোন ক্লায়েন্টের জন্য ওয়েবসাইট ডেভেলপ করছেন, তাহলে সিক্স পয়েন্ট স্ট্রেটেজি বোর্ডের মাধ্যমে আপনি এর ওভারঅল পারফরম্যান্স ইম্প্রুভ করতে পারবেন। তারকার মাঝখানে আপনার প্রোডাক্ট বা ওয়েবসাইটের নাম লিখুন, এবং What, Who, When, Where, How, এবং Why এর ভিত্তিকে প্রশ্ন করুন।

টিম মেম্বারদের মধ্যে এই প্রশ্ন গুলো নিয়ে আলোচনা করুন এবং সলিড একটি আইডিয়া খুঁজে বের করুন। এই কাজ গুলো করার জন্য আপনি Visual Paradigm ড্রয়িং টুলটি ব্যবহার করতে পারেন। এখানে ডিসকাশনের জন্য আপনি বিভিন্ন টেম্পলেটও পেয়ে যাবেন।

৫. স্টেপলাডার টেকনিক

যখন কোন মিটিং এ এক দুই জন মেম্বারই তাদের আইডিয়া বার বার শেয়ার করে এবং বাকিরা মত প্রকাশে বাধা গ্রস্ত হয় তখন এই স্টেপলাডার টেকনিকটি কাজ করে। এই টেকনিকটি উপযুক্ত যখন আপনার টিম মেম্বার ১৫ জনের মধ্যে থাকে।

বিভিন্ন মিটিং যখন গুগল মিট বা অন্য মাধ্যমে হবে, ধরে নিলাম সোশ্যাল মিডিয়া কন্টেন্ট ক্রিয়েশন নিয়ে আলোচনা হচ্ছে। মিটিং এর সময় এক দুইজন রেখে বাকি সবাইকে বের হয়ে যেতে বলুন। যখন দুইজন তাদের আইডিয়া শেয়ার করে ফেলবে তখন বাইরে থেকে আরেকজনকে মিটিং এ নিয়ে আসুন এবং তার আইডিয়া শেয়ার করতে বলেন। এভাবে নতুন আইডিয়া আনুন এবং আলোচনা করুন। মেম্বারদের বলে দিন তারা যেন বাইরে থাকা অবস্থায় নিজেদের মধ্যে আলোচনা না করে।

সকল মেম্বারদের কাছ থেকে আইডিয়া শুনার আগ পর্যন্ত এই প্রক্রিয়াটি রিপিট করতে থাকুন। এবার সব গুলো আইডিয়া ডিজিটাল বোর্ডে লিখে ফাইনালি সবাই মিলে আলোচনা করুন।

৬. ব্রেন-নেটিং

ক্লাউড স্টোরেজ এবং রিয়েল টাইম কোলাবোরেশান টুল ব্যবহারের সাথে ব্রেন নেটিং জড়িত। বিভিন্ন রিমোট টিম যারা বিভিন্ন টাইম জোনে থাকে তাদের জন্য এই টেকনিকটি উপযুক্ত। টিমের শতভাগ উপস্থিতি নিশ্চিত করতে এই মেথড ব্যবহার করা যায়।

আপনি Slack, Google Forms, ইত্যাদি টুলের মাধ্যমে বিভিন্ন বিষয় যেমন UI/UX, ওয়েবসাইট কোড আইডিয়া, ইত্যাদি বিষয় আলোচনা করতে পারেন। Google Sheet এর মাধ্যমে আপনি আইডিয়া সাজাতে পারেন অথবা আইডিয়া কালেক্ট করতে পারেন।

সব বিষয় আলোচনা করতে ভার্চুয়াল মিটিং এর আয়োজন করতে পারেন। আইডিয়া কালেকশনের সময় আপনি চাইলে পরিচয় গোপন রেখেও এটা করতে পারেন।

৭. রিভার্স ব্রেনস্টর্মিং

আপনি যদি কোন নতুন প্রোডাক্ট যেমন, ওয়েবসাইট, অ্যাপ, ইত্যাদি টেস্ট করতে চান তাহলে এই টেকনিকটি অবলম্বন করতে পারেন। কোন ইস্যু রিসলভ করতেও এই টেকনিক ভাল কাজ করতে পারে। অনলাইনে Miro এর মত অনেক কোলাবোরেশান টুল আপনার এই ধরনের কাজে টেম্পলেট অফার করবে।

সেশন চলাকালে মেম্বারদের জিজ্ঞেস করুন কিভাবে প্রোডাক্টি ফেইল করতে পারে সমাধান কী হতে পারে। বিভিন্ন পরিস্থিতিতে আপনি এই মেথড ফলো করতে পারেন যেমন,

  • কোন কোন সম্ভাব্য কারণে অ্যাপ ক্রাশ করতে পারে লিখুন এবং সেগুলো নিয়ে কাজ করুন
  • সব চেয়ে বাজে বিজ্ঞাপনটি নিয়ে কথা বলুন সেটা কিভাবে উন্নত করা যায় ভাবুন
  • যেকোনো একটি ব্যর্থতা খুঁজে বের করুন এবং ব্যর্থতা এড়াতে নতুন কোন অবজেক্টিভ হাতে নিন

শেষ কথা

অনলাইন হাজার হাজার ফ্রিলেন্সার এবং বিজনেস ম্যানদের মধ্যে ভাল করতে অবশ্যই আপনাকে ইউনিক কোন কিছু নিয়ে কাজ করতে হবে আর ইউনিক কোন কিছু বের করতে ব্রেনস্টর্মিং এর বিকল্প নেই।

আশা করা যায় আলোচনা করা ব্রেনস্টর্মিং টেকনিক গুলো আপনাকে এবং আপনার টিমকে সেরা আইডিয়া গুলো জেনারেট করতে সাহায্য করবে।

আশা করছি টিউনটি আপনার ভাল লেগেছে, তো কেমন হল আজকের এই টিউন জানাতে টিউমেন্ট করুন। পরবর্তী টিউন পর্যন্ত ভাল থাকুন, আল্লাহ হাফেজ।



Source link

Leave a Reply