Categories
Tips and Tricks

সেরা ৪ টি অ্যাপ দিয়ে তৈরি করুন ভার্চুয়াল লাইব্রেরি! জানুন আপনি কত গুলো বইয়ের মালিক | Techtunes


আসসালামু আলাইকুম টেকটিউনস কমিউনিটি, কেমন আছেন সবাই? আশা করছি ভাল আছেন। বরাবরেই মত আজকেও চলে এসেছি নতুন টিউন নিয়ে।

আপনি যদি বই প্রেমী হোন তাহলে অবশ্যই আপনার বাসায় একটি লাইব্রেরী থাকবে, সেখানে সুন্দর করে বই গুলো সাজিয়ে রাখবেন। আপনি বাসায় থাকলে হয়তো বই গুলো ঘুরে দেখতে পারবেন এবং জানতে পারবেন কে কোন বই পড়তে নিয়েছে। কিন্তু আপনি যদি বাসার বাইরে থাকেন তাহলে? তখন অবশ্য ফিজিক্যাল লাইব্রেরীতে জানার কথা না, কিন্তু আপনি বিষয়টাকে ডিজিটাল করে নিতে পারেন।

আপনি চাইলেই আপনার বই গুলো ভার্চুয়াল লাইব্রেরীতে স্থানান্তর করতে পারবেন। এর জন্য রয়েছে বিভিন্ন চমৎকার অ্যাপ। অ্যাপ গুলোর সাহায্যে ফিজিক্যাল বই ভার্চুয়াল লাইব্রেরীতে এড করতে পারবেন, কিনতে পারবেন, নতুন বই কিনতে পারবেন। চলুন সেরা কিছু অ্যাপ দেখে নেয়া যাক।

১. Bookshelf

আপনার সকল বইয়ের ক্যাটালগ সহজে Bookshelf এর মাধ্যমে ভার্চুয়াল লাইব্রেরীতে এড করে নিতে পারবেন। নতুন বই গুলোতে বারকোড থাকে, আপনি বারকোড স্ক্যান করে লাইব্রেরিতে এড করে ফেলতে পারবেন। এটা স্ক্যানের মাধ্যমে বইয়ের সকল তথ্য যেমন, লেখক, টাইটেল, পেজ নাম্বার, প্রকাশ ইত্যাদি স্বয়ংক্রিয়ভাবে এড হয়ে যাবে।

এখানে রয়েছে ব্যাচ স্ক্যান সুবিধা, বই একটি করে করে স্ক্যান না করে, আপনি একসাথে মাল্টিপল বই স্ক্যান করতে পারবেন। আপনার যদি অনেক পুরনো বই থাকে যেগুলোতে বার কোড নেই, সেগুলো আপনি ম্যানুয়ালি লাইব্রেরী এড করে নিতে পারেন।

প্রতিটি বই আপলোড করার পর আপনি সেগুলোকে রেট করতে পারবেন এবং ভবিষ্যতে পড়ার জন্য নোট লিখে রাখতে পারবেন। আপনার কোন বই ফ্রেন্ডরা নিলে সেটাও অ্যাপের মাধ্যমে ট্র‍্যাক করতে পারবেন।

আপনি বইয়ে কাস্টমাইজ ট্যাগ এড করতে পারবেন যার মাধ্যমে সহজে সর্ট করে বুক সেলফে সাজাতে পারবেন। আপনি শেলফে Genres, Authors, Book Length, Moods, ইত্যাদি বিষয়ে বই রাখতে পারবেন। তাছাড়া আপনি সব বই এক শেলফেও রাখতে পারেন। সেখানে পাবেন সর্ট ফিচার, Title, Author, Pages, Rating, ইত্যাদির ভিত্তিতে আপনি সর্ট করতে পারবেন।

অ্যাপে আপনি বেস্ট সেলার বই গুলোও দেখতে পারবেন, পছন্দ হলে এড করতে পারবেন উইশ-লিস্টে।

Bookshelf

অ্যাপ স্টোর লিংক @ Android | iOS

২. My Library

My Library একটি চমৎকার সিম্পল অ্যাপ যার সহজ ইন্টারফেসের মাধ্যমে খুব দ্রুত বারকোড বা ISBN এর মাধ্যমে বই লাইব্রেরীতে এড করে নিতে পারবেন। রয়েছে ম্যানুয়ালি এড করার ব্যবস্থাও। ভবিষ্যতে যে বই পড়তে আপনি আগ্রহী সেটা অ্যাপ এর Wish list এড করে নিতে পারবেন। এই অ্যাপ এর মাধ্যমে আপনি চাইলে কমিক এবং ভিডিও গেমও ট্র‍্যাক করতে পারবেন।

যদিও বই স্ক্যান করার পর অটোমেটিক্যালি অনেক বইয়ের কাভার চলে আসবে তারপরেও আপনি কাস্টম কাভারও আপলোড করতে পারবেন। বইয়ে কাস্টম নোট এবং সামারি এড করার সুবিধাও পাবেন এই অ্যাপে।

সব কিছু এড করা হয়ে গেলে বই সর্ট করতে পারবেন, Title, Author, Category, Series, এর ভিত্তিতে। চাইলে স্ক্রুল করেও দেখতে পারেন, যেখানে বইয়ের নাম, লেখকের নাম, পেজ নাম্বার, পাবলিকেশনের সাল ইত্যাদি দেখতে পারবেন।

My Library

অ্যাপ স্টোর লিংক @ My Library

৩. Libib

আপনি যখন Libib নামের অ্যাপটি ব্যবহার করবেন তখন ভিন্ন ভিন্ন লাইব্রেরীতে বই এড করতে পারবেন। এখানে বই ছাড়াও লাইব্রেরীতে, সিনেমা, ভিডিও গেম, মিউজিক এড করার সুযোগ পাবেন। লাইব্রেরীর আপনি কাস্টমাইজ নাম দিতে পারেন। নিজের জন্য প্রাইভেটও রাখতে পারেন অথবা সবাই শেয়ার করার জন্য পাবলিকও করে দিতে পারেন।

Libib এর ফ্রি একাউন্ট দিয়ে আপনি এক সাথে ৫০০০ আইটেম এড করতে পারবেন।

Libib এর সেটিংস থেকে লাইব্রেরী title, creator, এবং এড করার ডেট অনুযায়ী সর্ট করতে পারবেন। এটা সব লাইব্রেরীর ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য হবে। এখানে ইন্ডিভিজ্যুয়াল লাইব্রেরী সর্ট করার ব্যবস্থা নেই তবে সার্চ অপশন তো পাবেনই।

এই অ্যাপ Libib.com এর সাথেও কাজ করে যা একই লাইব্রেরী ম্যানেজমেন্ট অফার করে তবে ভিন্ন ফরমেটে। এই সাইটে আপনি প্রতিটি বইয়ে ট্যাগ, রিভিউ, এবং রেট করতে পারবেন।

Libib

অ্যাপ স্টোর লিংক @  Android | iOS

৪. Handy Library

Handy Library অ্যাপ এর মাধ্যমে আপনি আপটু ১০০ বই Barcode, ISBN, অথবা ম্যানুয়ালি এড করতে পারবেন। আপনার যদি অনেক বই থাকে তাহলে অ্যাপে পাবেন ব্যাচ আপলোডের সুবিধা।

এখানে যখন কোন বই আপনি এড করবেন তখন খুব সহজেই কেই বই ধার নিলে সেটা ট্র‍্যাক করতে পারবেন। আপনি চাইলে বই Wishlist এ এড করতে পারবেন।

Handy Library এর রয়েছে একটা স্ট্যাটেসটিকস সেন্টার, যেখানে আপনার রিডিং প্যাটার্ন, রিড স্ট্যাটাস এবং বই মালিকানার উপর ইনসাইট পাবেন। এটি আপনাকে জানাবে কোন কোন বই আপনার রয়েছে, গুগল অনুযায়ী সেগুলোর দাম কত। আরও জানতে পারবেন কোন জনরার বই আপনি বেশি পড়ছেন।

স্ট্যাটেসটিকস সেন্টারে আপনি গত ছয় মাসে কত গুলো বই কিনেছেন দাম কত সব কিছু দেখতে পারবেন।

আপনার যদি ১০০ বইয়ের ছোট লাইব্রেরি থাকে তাহলে Handy Library এর ফ্রি ভার্সন ব্যবহার করতে পারেন। তবে এর বেশি হলে আপনাকে এর প্রিমিয়াম প্যাকেজ নিতে হবে। আপনি এককালীন ৭.৯৯ ডলার দিয়ে এর প্রিমিয়াম এক্সেস নিতে পারবেন। এই প্যাকেজে আপনি আনলিমিটেড বই এড করতে পারবেন।

Handy Library

অ্যাপ স্টোর লিংক @ Handy Library

শেষ কথা

সব বই এড করে যখন আপনার চমৎকার একটি ভার্চুয়াল লাইব্রেরী হয়ে যাবে তখন সেখানে পাবেন সামারি লেখার ব্যবস্থা। নির্দিষ্ট বইয়ে নোট এড করে নিতে পারবেন, যাতে কোন। আপনাকে এখন নতুন বইয়ের জন্যও দোকানে যেতে হবে না। অ্যাপ গুলোর মাধ্যমেই আপনি সন্ধান পাবেন নতুন সব বইয়ের।

তো আজকে এই পর্যন্তই, কেমন হল এই টিউনটি জানাতে টিউমেন্ট করুন, পরবর্তী টিউন পর্যন্ত ভাল থাকুন আল্লাহ হাফেজ।



Source link

Leave a Reply