Categories
News

বিশ্বের দ্বিতীয় সেরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা?


সম্প্রতি “জাতিসংঘে, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনাকে বিশ্বের দ্বিতীয় সেরা প্রধানমন্ত্রী হিসেবে মনোনীত করেছে আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন গবেষণা সংস্থা দ্য স্ট্যাটিসটিক্স” শীর্ষক শিরোনামে একটি তথ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

ফেসবুকে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানেএখানেএখানেএখানেএখানেএখানেএখানে
পোস্টগুলোর আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানেএখানেএখানেএখানেএখানেএখানেএখানে

২০১৮ সালে গণমাধ্যমে এ বিষয়ে প্রচারিত সংবাদ দেখুন: সময় টিভিজনকণ্ঠবাংলাদেশ জার্নালযুগান্তরসারাবাংলা.নেটএকুশে টিভিচ্যানেল আইদৈনিক সংগ্রামবাংলা ট্রিবিউনইনকিলাব

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, জাতিসংঘে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বিশ্বের দ্বিতীয় সেরা প্রধানমন্ত্রী হিসেবে মনোনীত করার দাবিটি সঠিক নয় বরং ‘দ্য স্ট্যাটিসটিক্স’ নামের একটি অস্তিত্বহীন প্রতিষ্ঠানের সূত্রে এই তথ্যটি ২০১৮ সাল থেকে ফেসবুকে প্রচার হয়ে আসছে।

গুজবের সূত্রপাত

ফেসবুকের নিজস্ব মনিটরিং টুলস ব্যবহার করে ২০১৮ সালের ১৫ মার্চ ‘POTRYKA.COM’ নামের একটি ওয়েবসাইটে সর্বপ্রথম “শেখ হাসিনা বিশ্বের দ্বিতীয় সেরা প্রধানমন্ত্রী: জরিপ” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়। তবে এই পোর্টালটিতে প্রবেশ করা যায়নি।

পরবর্তীতে ২০১৮ সালের ১৫ মার্চ Supporters of Bangladesh Awami League নামের একটি ফেসবুক গ্রুপে Kanan Chowdhury (আর্কাইভ) নামের একটি ফেসবুক একাউন্ট থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশ্বের দ্বিতীয় সেরা প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হয়েছেন শীর্ষক একটি স্ট্যাটাস খুঁজে পাওয়া যায়।

স্ট্যাটাসটি বলা হয়, “প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশ্বের দ্বিতীয় সেরা প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হয়েছেন। এই তালিকার প্রথমে আছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, আর তৃতীয় অবস্থানে রয়েছেন কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো।  ২০১৭ সালে  সিঙ্গাপুর ভিত্তিক গবেষণা সংস্থা ‘দ্য স্টাটিস্টিকস ইন্টারন্যাশনাল’ নিজেদের করা এক জরিপ শেষে এই ঘোষণা দেয়।”

কিন্তু অনুসন্ধানে এই জরিপে প্রথম ও তৃতীয় হওয়া ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোকে উল্লেখ করা হলেও ভারত, কানাডা সহ আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে এ সংক্রান্ত কোনো তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি।

পরবর্তীতে এই বিষয়ে জরিপকারী সংস্থা ‘দ্য স্টাটিস্টিকস ইন্টারন্যাশনাল’ সম্পর্কে অনুসন্ধানে সিঙ্গাপুর ভিত্তিক এই জাতীয় কোনো প্রতিষ্ঠানের অস্তিত্ব খুঁজে পাওয়া যায়নি।

তবে International Statistical Institute (ISI) নামে একটি আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান খুঁজে পাওয়া যায়।

নেদারল্যান্ডস ভিত্তিক এই প্রতিষ্ঠানটি মূলত পরিসংখ্যানের বোঝাপড়া, বিকাশ এবং অনুশীলনের নেতৃত্ব দেওয়া, সমর্থন এবং প্রচারে কাজ করে থাকে। এদের ওয়েবসাইট ঘুরেও সেরা প্রধানমন্ত্রীর জরিপ সংক্রান্ত কোনো তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি।

পরবর্তীতে ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসি বাংলায় ২০১৮ সালের ১৫ নভেম্বর “ভুয়া খবর: ফেসবুকে রাজনৈতিক দলের কর্মী-সমর্থকরা যেসব গুজব ছড়িয়েছেন” শীর্ষক শিরোনামে প্রচারিত একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়।

এই প্রতিবেদনটি থেকে জানা যায়, ২০১৮ সালের মার্চ মাসের তৃতীয় সপ্তাহে মন্ত্রীসভার এক বৈঠক শেষে তৎকালীন মন্ত্রীপরিষদ মো: শফিউল আলম এক সংবাদ সম্মেলনে জানান, বিশ্বের দ্বিতীয় সেরা প্রধানমন্ত্রী হওয়ায় মন্ত্রী পরিষদ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানিয়েছে। পরবর্তীতে মন্ত্রীপরিষদ সচিবের এই অভিনন্দন জানানোর বক্তব্যকে কেন্দ্র দেশের একাধিক গণমাধ্যম সংবাদও প্রচার করে।

মন্ত্রীপরিষদ সচিব বলেন, সিঙ্গাপুর-ভিত্তিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান ‘দ্য স্ট্যাটিস্টিক ইন্টারন্যাশনাল’এর জরিপে শেখ হাসিনা দ্বিতীয় সেরা প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হয়েছেন।

তৎকালীন মন্ত্রীপরিষদ সচিবকে উদ্ধৃত করে প্রতিবেদনটিতে আরও বলা হয়, শেখ হাসিনা দ্বিতীয় সেরা প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন। এক্ষেত্রে স্বভাবতই প্রশ্ন জাগে প্রথম হয়েছেন কে? তবে বিবিসির প্রতিবেদনটিতে এই জরিপটিকে ভুয়া সংবাদ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে।

অপরদিকে সাম্প্রতিক সময়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিশ্বের সেরা দ্বিতীয় প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শেখ হাসিনাকে স্বীকৃতি দেওয়ার বিষয়ে জাতিসংঘের নাম উল্লেখ করা হচ্ছে।

কিন্তু অনুসন্ধানে জাতিসংঘের ওয়েবসাইটেও এ জাতীয় কোনো তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি।

তবে এর আগেও ২০১৯, ২০২০ ও ২০২১ সালে একইসাথে জাতিসংঘ ও দ্য স্ট্যাটিস্টিক ইন্টারন্যাশনালের সূত্রে বাংলাদেশের বর্তমান শেখ হাসিনাকে বিশ্বের দ্বিতীয় সেরা প্রধানমন্ত্রী হিসেবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচার করা হয়েছে।

২০১৯ সালে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানেএখানে

২০২০ সালে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানেএখানে

২০২১ সালে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানেএখানে

মূলত, দ্য স্ট্যাটিস্টিক ইন্টারন্যাশনাল নামের একটি অস্তিত্বহীন প্রতিষ্ঠানকে সূত্র ধরে সর্বপ্রথম ২০১৮ সালে বাংলাদেশের বর্তমান শেখ হাসিনাকে বিশ্বের দ্বিতীয় সেরা প্রধানমন্ত্রী হিসেবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচার করা হয়। পরবর্তীতে মন্ত্রিপরিষদ থেকে প্রধানমন্ত্রীকে এই তথাকথিত অর্জনের জন্য অভিনন্দন জানানো হলে এটি বাংলাদেশের মূলধারার গণমাধ্যমেও প্রচার করা হয়। কিন্তু অনুসন্ধানে এই নামের কোনো প্রতিষ্ঠানের অস্তিত্ব পাওয়া যায়নি। অপরদিকে সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিশ্বের সেরা দ্বিতীয় প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শেখ হাসিনাকে স্বীকৃতি দেওয়ার বিষয়ে জাতিসংঘের নাম উল্লেখ করা হচ্ছে। কিন্তু জাতিসংঘের ওয়েবসাইটেও এ জাতীয় কোনো তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি।

এছাড়া, ইতোপূর্বে ফ্যাক্টচেকিং প্রতিষ্ঠান যাচাই বিষয়টিকে মিথ্যা হিসেবে শনাক্ত করে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

সুতরাং, জাতিসংঘে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বিশ্বের দ্বিতীয় সেরা প্রধানমন্ত্রী হিসেবে মনোনীত করার দাবিটি সম্পূর্ণ মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

Website of ISI: International Statistical Institute (ISI)
BBC Bangla: ভুয়া খবর: ফেসবুকে রাজনৈতিক দলের কর্মী-সমর্থকরা যেসব গুজব ছড়িয়েছেন
Website of UN: UN Website



Source link

Leave a Reply