Categories
News

হাফেজ তাকরিমের জন্য ছাদখোলা বাসের দাবিতে প্রচারিত ছবিটি এডিটেড


সম্প্রতি “আজ রাত ১২ টায় ঢাকা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পবিত্র কোরআনের পাখিকে বরণ করতে ছাদ খোলা বাস প্রস্তুত” শীর্ষক শিরোনামের একটি তথ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচারিত হচ্ছে।

ফেসবুকে প্রচারিত এরকম কিছু পোস্ট দেখুন এখানেএখানেএখানেএখানে এবং এখানে
পোস্টগুলোর আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানেএখানেএখানেএখানে এবং এখানে

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, হাফেজ তাকরিমকে বরণ করে নিতে ঢাকা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ছাদখোলা বাসের ব্যবস্থা করা হয় নি বরং ভীনদেশী একটি বাসের ছবিকে প্রযুক্তির সাহায্যে এডিট করে উক্ত দাবিতে প্রচার করা হচ্ছে।

রিভার্স ইমেজ সার্চের মাধ্যমে, TEILEN AVOCATS নামক টুইটার একাউন্টে ২০১৮ সালের ১৬ জুলাই “Notre Cabinet fera son maximum pour vous avoir une photo des Bleus montant dans le bus…affaire à suivre” শীর্ষক শিরোনামের একটি টুইট পাওয়া যায়। উক্ত টুইটের ছবির সাথে হাফেজ তাকরিমের জন্য বাসের দাবিতে প্রচারিত ছবির মিল খুঁজে পাওয়া যায়। উক্ত ছবিতে দেখা যায়, বাসটির সামনের অংশে ফ্রান্স ফুটবল ফেডারেশনের লোগো যুক্ত করা আছে। ফ্রেঞ্চ ভাষায় টুইটটিতে লিখা ছিলো:

Notre Cabinet fera son maximum pour vous avoir une photo des Bleus montant dans le bus…affaire à suivre !

বাংলায় যার ভাবার্থ করলে হয়,

‘প্যারিস সফরের অংশ হিসেবে ফ্রান্সের ন্যাশনাল ফুটবল টিমের জন্য একটি ছাদখোলা বাসকে প্রস্তুত করা হয়েছে। ন্যাশনাল ফুটবল দলের খেলোয়ারদের ক্যামেরায় বন্দি করতে অপেক্ষা করছে টুইটার একাউন্টের প্রতিনিধিরা।’

অর্থাৎ, হাফেজ তাকরীমের জন্য ছাদখোলা বাসের ব্যবস্থার দাবিতে প্রচারিত ছবিটি মূলত ফ্রান্সের ফুটবল দলের খেলোয়াড়দের পরিবহনের জন্য ব্যবহৃত বাস। উক্ত ছবিকে এডিট করে হাফেজ তাকরীমের ছবি যুক্ত করা হয়েছে।

এছাড়াও, ‘Asaad World’ নামক ফেসবুজ পেজে ২০২২ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর পোস্ট করা “কোরআনের পাখিকে বরণ করতে ছাদখোলা বাস প্রস্তুত!
আহা! এমনটা হলে কতই না ভাল হত!
মনের কল্পনাকে ডিজাইন করতে ভাল লাগে। আপনার কাছে কেমল লেগেছে জানাবেন।” শীর্ষক শিরোনামের একটি ছবি খুঁজে পাওয়া যায়।

উক্ত ছবির ক্যাপশন থেকে জানা যায়, ছবিটি বাস্তবিক কোনো ছবি নয় বরং ছবিটি এডিট করা হয়েছে। এমনকি ছবির কমেন্টবক্সে উক্ত ছবিটি এডিট করার ব্যাপারে নিশ্চিত করে পেজের এডমিন।

মূলত, ‘প্যরিস সফরের অংশ হিসেবে ফ্রান্সের ন্যাশনাল ফুটবল টিমের জন্য একটি ছাদখোলা বাসকে প্রস্তুত করা হয়। উক্ত বাসের ছবিকে প্রযুক্তির সাহায্যে এডিট করে হাফেজ তাকরীমের ছবি যুক্ত করা হয়। পরবর্তীতে ছবিটি হাফেজ তাকরীমের জন্য ছাদখোলা বাসের ব্যবস্থা হয়েছে দাবিতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে।

উল্লেখ্য, গত ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২ তারিখে সৌদি আরবের মক্কায় মসজিদুল হারাম গ্রান্ড মসজিদে কিং আব্দুল আজিজ আন্তর্জাতিক হিফজুল কোরআন পাঠ প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের সালেহ আহমদ তাকরিম তৃতীয় স্থান অর্জন করেছে।

সুতরাং, হাফেজ তাকরিমের জন্য বিমানবন্দরে ছাদখোলা বাসের ব্যবস্থা করার দাবিটি মিথ্যা।

তথ্যসূত্র





Source link

Leave a Reply