Categories
News

ডলারের বিনিময় মূল্য ৯৩.৯০ টাকা হওয়ার দাবিটি মিথ্যা


সম্প্রতি “ডলারের আজকের মূল্য ৯৩.৯০ টাকা !” শীর্ষক শিরোনামের একটি তথ্য গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচার করা হচ্ছে।

যা দাবি করা হচ্ছে

মূল ধারার গণমাধ্যম দেশটিভি’র ডিজিটাল প্লাটফর্ম ইনচার্জ Palash Mahmud ফেসবুকে তার অ্যাকাউন্ট থেকে গত ১৭ সেপ্টেম্বর দেওয়া এক স্ট্যাটাসে (আর্কাইভ) দাবি করেন, “টাকার মূল্য প্রায় ১০% বেড়েছে। আজ ১ ডলারের বিপরীতে টাকার মূল্য ৯৩.৯০ টাকা।

ফেসবুকে প্রচারিত এমন আরো কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে এবং এখানে। পোস্টগুলোর আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানে, এখানে এবং এখানে।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, টাকার বিপরীতে ডলারের বর্তমান বিনিময় মূল্য ৯৩.৯০ টাকা হওয়ার দাবিটি সত্য নয় বরং বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্যমতে টাকার বিপরীতে বর্তমানে ডলার রেট ১০৫.৫০ টাকা।

কি-ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে গুগলের শাখা প্রতিষ্ঠান Google Finance এর ওয়েবসাইটে (আর্কাইভ) গিয়ে দেখা যায় (১৮ সেপ্টেম্বর), ১ ডলারের বিনিময় মূল্য ৯৩.৯৫০০ টাকা দেখাচ্ছে। এর আগের হালনাগাদ তথ্যে বিনিময় মূল্য দেখানো হয় ৯৩.৯০ টাকা। 

Google Finance এর তথ্যটিই গুগলের সার্চ রেজাল্ট (আর্কাইভ) পেজে দেখানো হচ্ছিল।

পরবর্তীতে মূলধারার অনলাইন সংবাদমাধ্যম বাংলা ট্রিবিউন এর ওয়েবসাইটে গত ১৮ সেপ্টেম্বর ডলারের দাম ৯৩ টাকা ভুয়া খবর শিরোনামে একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়। প্রতিবেদনে বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রধান অর্থনীতিবিদ হাবিবুর রহমানের বরাতে বলা হয়, “গুগলে যেটা শো করছে সেটি সঠিক নয়। কেউ হয়তো যুক্তরাজ্যের একটি ওয়েবসাইটে ৯৩ টাকার তথ্য দিয়েছে। সেখান কারণে গুগল এটা শো করছে। তিনি উল্লেখ করেন, এখন ডলারের রেট ১০৬ টাকা।”

Screenshot taken from banglatribune website

অধিকতর অনুসন্ধানে বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র ও নির্বাহী পরিচালক মোঃ সিরাজুল ইসলামের সাথে গতকাল (১৮ সেপ্টেম্বর) যোগাযোগ করলে তিনি রিউমর স্ক্যানারকে জানান, “এই তথ্যটি (ডলারের বিনিময় মূল্য ৯৩.৯০ টাকা) সঠিক নয়।” 

পরবর্তীতে বাংলাদেশ ব্যাংকের আরেক নির্বাহী পরিচালক আবুল কালাম আজাদের সাথে গতকাল (১৮ সেপ্টেম্বর)  যোগাযোগ করলে তিনি রিউমর স্ক্যানারকে জানান, “১৫ সেপ্টেম্বরের যে রিপোর্ট সেটাই সর্বশেষ। এরপর ডাটা আপডেট হয় নি এখনো। তাই ওই ডাটাই এখনও বহাল।

অর্থাৎ, দাবিটি ছড়িয়ে পড়ার সময়ে ডলারের বিনিময় মূল্য ১০৬.৭৫ টাকা ছিল।

সর্বশেষ তথ্যে ডলারের বিনিময় মূল্য কত?

বাংলাদেশ ব্যাংকের ওয়েবসাইটে গত ১৮ সেপ্টেম্বর বিকেলে দেখা যায়, ডলারের বিনিময় মূল্য সর্বশেষ হালনাগাদ হয়েছে গত ১৫ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার। পরের দুইদিন ব্যাংক ছুটি থাকায় তথ্য হালনাগাদ হয় নি। রিউমর স্ক্যনারের সাথে আলাপকালে ব্যাংকের আরেক নির্বাহী পরিচালক আবুল কালাম আজাদও একই তথ্য জানিয়ে বলেন, “ছুটির পর আজ (রবিবার) অফিস খুলেছে। নতুন তথ্যও তাই হালনাগাদ করা হবে।”

পরবর্তীতে আজ সকালে বাংলাদেশ ব্যাংকের ওয়েবসাইটে নতুন হালনাগাদ তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়। হালনাগাদকৃত তথ্যে দেখা যায়, ১৮ সেপ্টেম্বর থেকে প্রতি ডলারের ক্রয়মূল্য ১০৫.৫০০০ টাকা এবং বিক্রয়মূল্য ১০৫.৫০০০ টাকা।

Screenshot taken from bb.org website

গুগলের ভুল কি এবারই প্রথম?

২০১৯ সালের ১৬ জানুয়ারি পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যম The Express Tribune প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ১৫ জানুয়ারি গুগল কারেন্সি কনভারসনে ১ ডলারের বিনিময় মূল্য পাকিস্তানি মুদ্রায় ৭৬.২৫ রূপী দেখাচ্ছিল। কিন্তু সে সময় প্রকৃতপক্ষে প্রতি ডলারে পাকিস্তানি মুদ্রার ক্ষেত্রে বিনিময় মূল্য ছিল ১৪০.১৪ রূপী। পরবর্তীতে গুগল এই ভুল সংশোধন করে নেয়।

Screenshot taken from Google

গুগলের এমন ভুল গেল কয়েক বছর ধরেই বেশ কয়েকবারই (The New Indian Express, CNN) সংবাদমাধ্যমে খবরের শিরোনাম হয়েছে।

আফ্রিকার দেশ ঘানায় ২০১৯ সালে এমন একটি ঘটনার প্রেক্ষিতে গুগল কর্তৃপক্ষ ঘানা অর্থ মন্ত্রণালয়ে একটি চিঠি পাঠায়। চিঠিতে গুগল জানায়, “ছোটখাটো ত্রুটির কারণে এমনটি ঘটার পর দ্রুত সংশোধন করা হয়। ” চিঠিতে গুগল কর্তৃপক্ষ বলেছে, “আমরা সবসময় লোকেদের সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে সাহায্য করার জন্য সবচেয়ে প্রাসঙ্গিক, দরকারী তথ্য প্রদান করার লক্ষ্য রাখি। কিন্তু কখনও কখনও এমন কিছু অস্থায়ী সমস্যা হয় যা লোকেদের অবাঞ্ছিত অভিজ্ঞতার কারণ হতে পারে, যেমন গত শুক্রবারের মতো৷ এটা ছিল দুঃখজনক।”

Screenshot taken from mofep.gov website

বাংলাদেশের ঘটনাটিতেও একইরকম ভাবে তথ্য সংশোধন করেছে গুগল। গেল দুইদিন ধরে গুগল কারেন্সি কনভারসনে ১ ডলারের বিনিময় মূল্য ৯৩.৯৫০০ টাকা দেখালেও বাংলাদেশ ব্যাংকের ওয়েবসাইটে এ সংক্রান্ত নতুন তথ্য হালনাগাদ করার পর আজ দুপুর নাগাদ গুগলও সংশোধন করেছে পূর্বের তথ্য। আজ (১৯ সেপ্টেম্বর) গুগল সার্চে ১ ডলারের বিনিময় মূল্য ১০৪.৫০ টাকা দেখাচ্ছে।

Screenshot taken from Google

গুগলের দেওয়া বিনিময় মূল্যই যে একমাত্র কনভারসন রেট পর্যবেক্ষণ মাধ্যম, গুগল অবশ্য কখনোই এমন দাবি করে নি। গুগল কখনোই তাদের দেখানো এক্সচেঞ্জ রেটের বিষয়ে নিশ্চয়তা দেয় না। সার্চ জায়ান্টটি লেনদেন করার আগে বর্তমান এক্সচেঞ্জ রেট বা বিনিময় মূল্যের বিষয়ে নিশ্চিত হওয়ার পরামর্শ দিয়েছে। 

Screenshot taken from Google

চীনা মুদ্রায় লেনদেন বিষয়ে কী জানা যাচ্ছে?

অব্যাহত ডলার সংকটের মুখে বাংলাদেশের ব্যাংকগুলোকে চীনের মুদ্রা ইউয়ানে অ্যাকাউন্ট খোলার অনুমোদন দিয়েছে দেশটির কেন্দ্রীয় ব্যাংক। গত ১৫ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ ব্যাংকের এ সংক্রান্ত একটি সার্কুলার জারি করেছে। সার্কুলারে বলা হয়েছে, ব্যাংকগুলোর অথরাইজড ডিলার শাখা চীনের সংশ্লিষ্ট ব্যাংকের সাথে ইউয়ান মুদ্রায় ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খুলতে পারবে।

Screenshot taken from bb.org notice

বিবিসি বাংলা এক প্রতিবেদনে বলেছে, ‘চাইলেই ইউয়ানের মাধ্যমে দ্রুত লেনদেন করা যাবে কিনা সেটি নিয়ে সংশয় আছে। এর একটি বড় কারণ হচ্ছে, ইউয়ানের দাম কিভাবে নির্ধারিত হবে।’ সাবেক ব্যাংকার এবং পর্যবেক্ষক নুরুল আমিনের বরাতে একই প্রতিবদনে বলা হয়, “বাংলাদেশের বৈদেশিক মুদ্রা আসে রপ্তানি এবং রেমিটেন্স থেকে। দুটোই আসে ডলারে। তাছাড়া চীনে যেহেতু বাংলাদেশের রপ্তানি ১ বিলিয়ন ডলারেরও কম সেহেতু ইউয়ানের যোগান বেশি থাকবে না। তবে চীনের সাথে কারেন্সি কনভার্সনের মাধ্যমে লেনদেন করা সম্ভব বলে তিনি মনে মনে করেন।”

রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের বাস্তবতায় নিরাপদ মুদ্রা হিসেবে মার্কিন ডলারের কদর বাড়ছে। ফলে উন্নয়নশীলসহ প্রায় সব দেশেই ডলারের বিনিময় মূল্য বাড়ছে। জাতীয় দৈনিক প্রথম আলো বলছে, ‘এই পরিস্থিতিতে ডলারকে পাশ কাটিয়ে অন্য মুদ্রায় বাংলাদেশ বাণিজ্য করতে পারে কি না, তা নিয়েও জোর আলোচনা চলছিল বেশ কয়েকদিন ধরেই। রাশিয়া সাম্প্রতিক বছরগুলোতে মার্কিন ডলার থেকে নিজেকে অনেকটা সরিয়ে রেখে তার বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ বৈচিত্র্যময় করেছে। ডলারের বিকল্প হিসেবে দেশটি আগে থেকেই চীনের ইউয়ান ও অন্য কয়েকটি দেশের মুদ্রায় রিজার্ভ গড়ে তুলেছে।’ বাংলাদেশ ব্যাংকের ইউয়ান মুদ্রা বিষয়ের সার্কুলার একই পথে হাঁটার ইঙ্গিত কি না সেটা সময়ই বলে দেবে।

মূলত, গত ১৭ সেপ্টেম্বর (আনুমানিক) থেকে গুগল কারেন্সি কনভারসনে ১ মার্কিন ডলার সমান ৯৩.৯০ টাকা দেখাচ্ছে। উক্ত তথ্যটিকে সূত্র ধরে চীনা মুদ্রায় লেনদেন শুরুর পর ডলারের বিপরীতে টাকার মান বেড়েছে দাবি করে ফেসবুকে প্রচার করা হচ্ছে। তবে বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র মোঃ সিরাজুল ইসলাম উল্লিখিত তথ্যটি সঠিক নয় বলে রিউমর স্ক্যানারকে নিশ্চিত করেছেন। পরবর্তীতে, বাংলাদেশ ব্যাংকের আজকের হালনাগাদ তথ্যে দেখা যায়, প্রতি ডলার এখন সর্বোচ্চ ১০৫.৫০ টাকায় লেনদেন হচ্ছে। এর আগে ১৫ সেপ্টেম্বর হালনাগাদকৃত সর্বশেষ তথ্যমতে, এই মূল্য ছিল ১০৬.৭৫ টাকা।

উল্লেখ্য, সাম্প্রতিক সময়ে ডলারের বিনিময় মূল্য ৯৩ টাকায় নামে নি। সর্বশেষ গত ২১ জুলাই বিনিময় মূল্য ৯৩.৯৫০০ টাকা হয়েছিল

Screenshot taken from bb.org website

প্রসঙ্গত, টাকার বিপরীতে ডলারের মূল্য হ্রাস-বৃদ্ধি হওয়া এবং এই মূল্য নির্ধারণ হওয়ার বিষয়ে পূর্বে একটি ফ্যাক্ট ফাইল প্রকাশ করেছিল রিউমর স্ক্যানার।

সুতরাং, টাকার বিপরীতে ডলারের বর্তমান বিনিময় মূল্য ৯৩.৯০ টাকা হওয়ার দাবিটি সম্পূর্ণ মিথ্যা।

তথ্যসূত্র



Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published.