Categories
Tips and Tricks

কোথায় ও কীভাবে বিটকয়েন সেল করে ক্যাশ করবেন? | Techtunes


আসসালামু আলাইকুম টেকটিউনস কমিউনিটি, কেমন আছেন সবাই? আশা করছি ভাল আছেন। বরাবরেই মত আজকেও চলে এসেছি নতুন টিউন নিয়ে।

গত কয়েক বছর ধরে বিটকয়েনের দাম উঠানামা করলেও ডিজিটাল কারেন্সি হিসেবে এর যথেষ্ট ভ্যালু রয়েছে। ধরুন আপনার কিছু বিটকয়েন আছে, তো কিভাবে সেগুলো বিক্রি করবেন? মূলত এই টিউনটি বিটকয়েন কেনাবেচা নিয়েই। আজকে জানব কিভাবে বিটকয়েন বিক্রি করতে হয় এবং বিক্রি করার সেরা মেথড কি?

১. ক্রিপটোকারেন্সি এক্সচেঞ্জ

টাকা বিনিময়ে বিটকয়েন সেল করার অনেক ওয়ে আছে এর মধ্যে অন্যতম হল ক্রিপটোকারেন্সি এক্সচেঞ্জ। এই ধরনের এক্সচেঞ্জের মাধ্যমে আপনি দ্রুত এবং সহজে বিটকয়েন সেল করতে পারবেন। Binance, Kraken, KuCoin, Bitfinex, এবং Coinbase সহ আরও অনেক কারেন্সি আছে যেগুলো এক্সচেঞ্জ করা যায়।

বিটকয়েন এক্সচেঞ্জ কঠিন কিছু না। প্রথমে নির্দিষ্ট এক্সচেঞ্জে আপনাকে একাউন্ট খুলতে হবে এবং নিজের আইডেন্টি প্রুফ করতে হবে। তারপর যে পরিমাণ বিটকয়েন সেল করবেন সেই পরিমাণ বিটকয়েন এক্সচেঞ্জ ওয়ালেটে ট্রান্সফার করতে হবে।

বিভিন্ন এক্সচেঞ্জ বিভিন্ন উইথড্র মেথড অফার করে। সব কিছু ঠিক থাকলে আপনি নির্দিষ্ট পরিমাণ বিটকয়েন আপনি এক্সচেঞ্জ করে নিতে পারবেন। তবে একটা বিষয় আপনাকে খেয়াল রাখতে হবে এক্সচেঞ্জ এর উপর ভিত্তি করে ফি এর তারতম্য হতে পারে। সুতরাং লেনদেন এর আগে অবশ্যই ফি দেখে নিন।

২. P2P ট্রেড

P2P অথবা পারসোন টু পারসোন ট্রেড অনলাইনে নির্দিষ্ট ওয়েবসাইটের মাধ্যমেও করতে পারেন অথবা নির্দিষ্ট Decentralized Exchange ব্যবহার করতে পারবেন। এখানে কোন ব্যক্তি তাদের বিটকয়েন কেনা অথবা বেচার জন্য নির্দিষ্ট P2P প্ল্যাটফর্মে Post করবে। কেউ একজন সেল করতে রাজি থাকলে পারস্পারিক চুক্তির মাধ্যমে এখানে লেনদেন হয়।

আপনি যদি P2P Trade এ লেনদেন করতে চান তাহলে অবশ্যই বিশ্বাসযোগ্য প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করুন। ট্রাস্টেড কিছু প্ল্যাটফর্ম হচ্ছে, Binance, LocalBitcoins, Bybit, Coindirect, এবং Paxful।

৩. বিটকয়েন ATM

নাম ATM হলেও এটা সাধারণ কোন ATM মেশিন ব্যবস্থা নয়। Bitcoin ATM ব্যবহৃত হয় বিটকয়েন কেনাবেচার কাজে।

আপনি যখন নির্দিষ্ট ফান্ড সেল করার সিদ্ধান্ত নেবেন তখন Bitcoin ATM একটি QR প্রোভাইট করবে। এখানে লেনদেনের ক্ষেত্রে আপনার অবশ্যই আইডেন্টেকটিউনস ভেরিফিকেশনের প্রয়োজন হবে। লেনদেন সম্পন্ন হয়ে গেলে আপনি ATM থেকে ক্যাশ উত্তোলন অথবা Redemption কোড পেয়ে যাবেন। এই পদ্ধতিতে লেনদেন খুবই কম সময়ে কমপ্লিট হয়ে যায়। আপনি যদি Bitcoin ATM এ BTC সেল করতে চান তাহলে Bitcoin ATM locator এ লোকেশন দেখতে পারেন।

শেষ কথা

এই মুহূর্তে এটা বলার অপেক্ষা রাখে না বিটকয়েনের ভ্যালু এখন সবচেয়ে বেশি। বর্তমানে এক বিটকয়েনের দাম বিশ হাজার ডলারের চেয়ে বেশি। তাছাড়া বিটকয়েন ফিয়াট কয়েন হতেও এখনো অনেক দিন বাকি। সুতরাং আপনার হাতে এখন কোন বিটকয়েন থাকলে সেগুলো উপরের উল্লেখিত মেথড ব্যবহার করে ক্যাশে কনভার্ট করতে পারেন।

তো আজকে এই পর্যন্তই পরবর্তী টিউন পর্যন্ত ভাল থাকুন, আল্লাহ হাফেজ।



Source link

Leave a Reply