Categories
News

বুর্জ খলিফা থেকে ধারণকৃত হারিকেনের দৃশ্য দাবিতে প্রচারিত ভিডিওটি এনিমেটেড


সম্প্রতি, “বুর্জ খলিফা থেকে হারিকেন এর ভিডিও” শীর্ষক শিরোনামে একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

ফেসবুকে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে। পোস্টগুলোর আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায় যে, ভিডিওটি বুর্জ খলিফা থেকে ধারণকৃত হারিকেন এর বাস্তব ভিডিও নয় বরং এটি ডিজিটাল প্রযুক্তি ব্যবহার করে ডিজিটাল আর্ট থেকে রুপান্তরিত এনিমেশন ভিডিও।

ভিডিওটির কিছুর স্থিরচিত্র রিভার্স ইমেজ অনুসন্ধানের মাধ্যমে, icanvas নামের ডিজিটাল আর্ট এর একটি ওয়েবসাইট থেকে Miami Beach Doom – Canvas Print শিরোনামে আলোচিত ভিডিওর সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ ছবি খুঁজে পাওয়া যায়। ওয়েবসাইট থেকে জানা যায়, ছবিটি Brent Shavnore নামের একজন ডিজিটাল আর্টিস্ট এর আকা ছবি।

Screenshot from icanvas website

পাশাপাশি, Brent Shavnore এর ওয়েবসাইট, টুইটার এবং ইন্সট্রাগ্রাম একাউন্ট খুজে পাওয়া যায়। যেখানে থেকে জানা যায়, তিনি পেশায় একজন ডিজিটাল আর্টিস্ট।

Screenshot from Brent Shavnore instagram post

তার একাউন্টগুলো থেকে আলোচিত ভিডিওর অনুরূপ অসংখ্য ছবি পাওয়া যায়।

Screenshot from Brent Shavnore instagram posts

এর সূত্র ধরে The glitch.org নামে একটি ইন্সট্রাগ্রাম একাউন্টে ২০১৯ সালের ১৮ মে প্রকাশিত “There is peace even in the storm.” – Vincent van Gogh.Photos taken by @shavnore Animation by TheGlitch” আলোচিত ভিডিওটি খুজে পাওয়া যায়। ক্যাপশন থেকে জানা যায় ভিডিওটি  Brent Shavnore এর ছবি থেকে করা একটি এনিমেশন।

পরবর্তীতে, ছবি হতে প্রাপ্ত ক্যাপশন অনুযায়ী কি-ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে ছবি শেয়ারিং ওয়েবসাইট Shutter Stock থেকে মায়ামী বিচের ছবি খুঁজে পাওয়া যায় এবং মায়ামী বিচের ছবির সাথে আলোচিত ভিডিওটির হুবহু মিল খুজে পাওয়া যায়।

Screenshot from shutterstock website

অন্যদিকে, ছবি শেয়ারিং ওয়েবসাইট Shutter Stock থেকে বুর্জ খলিফার ছবিটিও পাওয়া যায়। প্রাপ্ত ছবি থেকে বুর্জ খলিফার চারপাশের যে দৃশ্য দেখা যায় তার সাথে আলোচিত ভিডিওটির পারিপার্শ্বিক দৃশ্যের মিল খুজে পাওয়া যায় না।

Screenshot from shutterstock website

মূলত, ডিজিটাল আর্টিস্ট শ্যাভনর যুক্তরাষ্ট্রের মায়ামী বিচের সাথে হারিকেন এর ছবি যুক্ত ডিজিটাল আর্ট করেন। পরবর্তীতে শ্যাভরনের এই ছবিকে এনিমেশন আকার প্রদান করে এক ভিজুয়াল আর্টিস্ট। ডিজিটাল প্রযুক্তির সহায়তায় উক্ত এনিমেশন ভিডিওকেই বুর্জ খলিফা থেকে ধারণকৃত হারিকেন এর বাস্তব ভিডিও দাবিতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচার করা হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, সংযুক্ত আরব আমিরাতে অবস্থিত বুর্জ খলিফা পৃথিবীর সবচেয়ে উচু বিল্ডিং যার উচ্চতা ৮২৮ মিটার ( ২৭১৬.৫ ফিট)।

সুতরাং, ডিজিটাল প্রযুক্তির সহায়তায় নির্মিত মায়ামী বিচে হারিকেন এর ভিডিওকে বুর্জ খলিফা থেকে হারিকেন এর বাস্তব ভিডিও হিসেবে প্রচার করা হচ্ছে; যা সম্পূর্ণ মিথ্যা।

তথ্যসূত্র





Source link

Leave a Reply