Categories
টেকনোলজি

Top 6 Best Most Useful Gadget


গাইস প্রতিদিন আমরা অনেক ধরনের গ্যাজেট ইউস করে থাকি, গ্যাজেট আমাদের কাজকে ইজি করার সাথে সাথে আমাদের লাইফকে আরো অনেক বেশি এডভান্স বানিয়ে থাকে। দিনের শুরু থেকে রাত পর্যন্ত আমরা সবাই গ্যাজেট ইউস করে থাকি। আজকের গ্যাজেট সিরিজে জানতে চলেছেন Top 6 Best Most Useful Gadget সম্পর্কে। নিয়মিত Awesome Gadgets, Latest Gadgets, Most Useful Gadgets, New Gadgets সম্পর্কে জানতে আমাদের সাথে জুড়ে থাকুন।

Number 6. Blackhead Remover

আজকের গ্যাজেট লিস্ট শুরু করবো একটি মোস্ট ইউজফু গ্যাজেট দিয়ে। নরমালি আজকাল প্রায় সবারি ব্লাকহেডের প্রব্লেম দেখা যায় আর আর এসব আপনার ফেসকে নষ্ট করে থাকে, যদি আপনি এ প্রব্লেম থেকে বের হতে চান তাহলে দেখে নিতে পারেন এ গ্যাজেট্টি আর এটা একটি ব্লাকহেড রিমুভার গ্যাজেট। গ্যাজেট্টি ইজি টু ইউজ আর এটা রিচার্জেবল, এরফলে যেকোণো জায়গায় এটাকে নিয়ে যেতে পারবেন এবং প্রয়োজন হলে ইউজ করতে পারবেন। যদি বলা হয় গ্যাজেট্টিকে ইউজের কথা তাহলে প্রথমে এটাকে অন করে নিতে হবে এরপরে আপনার ফেসের মাঝে মানে যেখানে ব্লাকহেড আছে সেখানে গ্যাজেট্টির হেডকে লাগিয়ে দরে রাখলেই আপনার ফেসের ব্লাকহেড বেরিয়ে আসবে। গ্যাজেট্টি ওয়ার্ক করে থাকে সাকশোনের মাধ্যমে। এটার হেল্পে ব্লাকহেড,পিম্পল ইজিলি রিমুভ করতে পারবেন। এছাড়া এটার সাথে ফাইভ ডিফ্রেন্ট টাইপের নস পেয়ে যাবেন আর এসব ইউজ করে ডিফ্রেন্টভাবে আপনার ফেসের ব্লাকহেড রিমুভ করতে পারবেন। গ্যাজেট্টির মাঝে থ্রি স্পীড মুড দেওয়া হয়েছে আর আপনার প্রয়োজনের একোর্ডিং ফেসের মাঝে ইউজ করতে পারবেন। অভার অল দেখা যায় আজকের ডেটে এ ধরনের গ্যাজেট ছেলে হোক বা মেয়ে সবারি অনেক কাজের গ্যাজেট হতে থাকে। আর যদি বলা হয় এটার প্রাইসের কথা তাহলে দারাজ থেকে মাত্র সাতশ (৭০০) টাকার মাঝেই পার্চেস করতে পারবেন।

Number 5. Self Defence Finger Ring

নাম্বার ফাইভের গ্যাজেট্টি রাখা হয়েছে টকটি সেলফ ডিফ্রেন্স গ্যাজেট। নরমালি দেখা যায় আজকের ডেটে সেলফ ডিফেন্স বিশেষ করে মেয়েদের জন্য অনেক ইমপোর্টেন্ট হয়ে গেছে, আর যদি আপনি বাজেটের মাঝে ছোট সাইজের সেলফ ডিফেন্স গ্যাজেট খুজে থাকেন তাহলে দেখে নিতে পারেন এ গ্যাজেট আর এটা একটি ফিঙ্গার রিং সেলফ ডিফেন্স গ্যাজেট। গ্যাজেট্টী ইউজ করা অনেক ইজি আর এটাকে আপনি নরমাল রিংয়ের মতোই ইউজ করতে পারবেন, আর যখন প্রয়োজন হবে সিমপ্লি এটার সাইটে দেওয়া লক বাটন প্রেস করলে এটার মাঝে মিনি নাইফ দেখতে পারবেন নিজেকে প্রটেক্ট জন্য। রিংটি নরমাল রিংয়ের মতোই ডিজাইন করা হয়েছে আর এটাকে দেখে কেউ বুঝতেই পারবেনা এটা সেলফ ডিফেন্স রিং। এটার হেল্পে নিজেকে প্রটেক্ট করার সাথে ছোট খাটো জিনিস পর্যন্ত কাটতে পারবেন। স্টেনলেস স্টিল দিয়ে বানানো হয়েছে এরফলে সহজে নষ্ট হয়ে যাবেনা। গাইস যদি আপনি মিনি সাইজের সেলফ ডিফেন্স গ্যাজেট খুজে থাকেন তাহলে এটা আপনার জন্য পার্ফেক্ট চয়েস হয়ে যাবে। আর যদি বলা হয় এটার প্রাইসের কথা তাহলে দারাজ থেকে এক হাজার সাতশ পঁচিশ (১৭২৫) টাকার মাঝেই পার্চেস করতে পারবেন, যা প্রাইসের দিক দিয়ে একটু বেশিই মনে হচ্ছে, তবে যদি চান এটার সিমিলার ভার্সন দারাজ থেকে মাত্র পঁয়তাল্লিশ (৪৫) টাকার মাঝেই পার্চেস করতে পারবেন।

Low Price👇

Number 4. Lenovo L02 Speaker

নরমালি আমরা মিউজিক ইনজয় করার জন্য ডিফ্রেন্ট টাইপের স্পীকার, ইয়ারবার্ড, ইয়ারফোন ইউজ করে থাকে, বাট এখন যে গ্যাজেট্টি দেখতে পাচ্ছেন এটা একটি স্পীকার তবে এটাকে দেখে কেউ বুঝবেই না এটা স্পীকার। স্পীকারটি ডিজাইন করা হয়েছে ক্যান্ডেল সেপে, আর এটার মাঝে আপনি স্পিকারের পাশা-পাশি FM রেডিও শুনতে পারবেন, মানে এটার মাঝে FM ফিচার দেওয়া হয়েছে। স্পীকারটিকে ইউজ করার জন্য সিমপ্লি আপনার ফোনের ব্লুতুথের সাথে কানেক্ট করে নিতে হবে দ্যান রেডি হয়ে যাবে ইউজের জন্য। স্পীকারটি পোর্টেবলভাবে ডিজাইন করা হয়েছে এরফলে এটাকে নিয়ে আউটডোরের মিউজিক ইনজয় করতে পারবেন, আর এটা থেকে কন্টিনিউয়াসলি এইট টু টেন আওয়ার পাওয়ার ব্যাকাপ পেয়ে যাবেন। স্পীকারটির মাঝে ইউজ করা লাইট ইফেক্ট এটাকে ইউনিক বানিয়ে থাকে আর এই লাইটকে এটার মাঝে দেওয়া নফের হেল্পে কন্ট্রোল করতে পারবেন। এছাড়া এটার মাঝে দেওয়া বাটনের হেল্পে লাইটের ডিফ্রেন্ট প্যাটান ইউজ করতে পারবেন। স্পীকারটিকে যদি চান রুমের ডেকোরের জন্য ইউজ করতে পারবেন, এছাড়া ডিম লাইটের মতোও ইউজ করতে পারবেন। অভার অল দেখা যায় স্পীকারের ডিজাইন লুকস অ্যান্ড ফিচার এটাকে ইউনিক বানিয়ে থাকে। আর যদি বলা হয় এটার প্রাইসের কথা তাহলে দারাজ থেকে দুই হাজার পাঁচশ (২৫০০) টাকার মাঝেই পার্চেস করতে পারবেন।

Number 3. Spy Camera Pen

আজকের ডেটে অনেক সময় দেখে যায় হঠাত সিক্রটলি ভিডিও দারণ করার প্রয়োজন পরে থাকে, আর এসব বিশেষ করে যারা সাংবাদিক বা প্রব্লেম হতে পারে এমন পরিস্থিতে প্রুফের জন্য সিক্রেটলি ভিডিও ধারন করা অনেক ইমপোর্টেন্ট হয়ে থাকে, আর যদি আপনি এরকম গ্যাজেট খুজে থাকেন তাহলে দেখে নিতে পারেন এ পেনটি, আর এটা একটি স্পাই পেন। পেনটির মাঝে দেওয়া হয়েছে একটি মিনি ক্যামেরা আর এটার উপরের বাটনে দুই সেকেন্ট প্রেস করে দরে রাখলেই রেকোর্ড হওয়ায় শুরু করে দিবে। পেনটি দেখতে নরমাল পেনের মতোই লাগে এরফলে কেউ বুঝতেই পারবেনা এটার মাঝে ক্যামেরা রয়েছে। পেনটির হেল্পে ভিডিও ধারণ করার সাথে সাথে ফটোও ক্লিক করতে পারবেন, এছাড়া এটা ভয়েসও রেকোর্ড করে থাকে। পেনটির হেল্পে আপনি লিখতেও পারবেন আর যখন প্রয়োজন হবে ভিডিও ধারনের কাজে ইউজ করতে পারবেন। যদি বলা হয় স্পাই এ পেনের প্রাইসের কথা তাহলে বিডিস্টোল থেকে মাত্র এক হাজার (১০০০) টাকার মাঝেই পার্চেস করতে পারবেন।

Number 2. Roccat Burst Pro

গাইস এটা হচ্ছে কমপ্যাক্ট ডিজানের লাইট ওয়েট একটি গেমিং মাউস, আর এটাকে ডিজাইন করা হয়েছে যারা পিসির মাঝে লিং টাইম গেমিং করে থাকেন। মাউসটির ডিজাইন অ্যান্ড লুকস এটাকে আরো ইউনিক বানিয়ে থাকে আর এটার ডিজাইন এমনভাবে করা হয়েছে যে আপনার হাতের মাঝে কমফোটলি ফিট হয়ে যাবে। স্মার্ট এ মাউসটির বিশেষ ফিচার হচ্ছে এটার ব্যাটারি লাইফ আর এটাকে আপনাকে হান্ড্রেড আওয়ার কন্টিনিউয়াসলি ব্যাকাপ দিয়ে থাকবে। এছাড়া রিচার্জেবল ফিচার থাকায় চার্জ শেষ হয়ে গেলে পুনরায় চার্জ করে ইউজ করতে পারবেন। মাউসটির মাঝে নাইন্টিকে ডিপিয়াই অপটিক্যাল সেন্সর দেওয়া হয়েছে এরফলে এটাকে থেকে আপনি ফাস্ট রেসপন্স পাবেন, আর গেমিংয়ে ফাস্ট রেসপন্স কতোটা ইমপোর্টেন্ট হয়ে থাকে যারা গেমার তারাই শুদু জানে। মাউসটি গেমিং মাউস হওয়ায় এটার মাঝে এক্সট্রা বাটন অ্যাড করা হয়েছে ,যাতে গেমের মাঝে কাস্টমাইজ করা যায়। এছাড়া মাউসটির মাঝে দেওয়া RGB লাইট ফিচার এটাকে একদম নেক্সট লেভেলের বানিয়ে থাকে। অভার অল দেখা যায় গেমারদের জন্য এ ধরনের গেমিং মাউস সত্যি অনেক ইউজফুল হয়ে থাকে। আর এটাকে গেমার ছাড়া রেগুলার ইউজাররাও ইউজ করতে পারবেন। যদি বলা হয় গেমিং মাউসটির প্রাইসের কথা তাহলে বাংলাদেশ থেকেই পাঁচ হাজার পাঁচ (৫৫০০) টাকার মাঝেই পার্চেস করতে পারবেন।

Number 1. JJRC Excelsior

গাইস আজকাল তো আপনি অনেক ধরনের ড্রোন দেখে থাকবেন, এমনো ড্রোন দেখে থাকবেন আকাশে উরে এবং মাটিতেও চলতে পারে, কিন্তু এখন যে ড্রোনটি দেখতে পাচ্ছেন নরমাল ড্রোন থেকে কয়েক দাপ এগিয়ে রয়েছে, এটা কোনো কার ড্রোন না এটা ট্যাংক ড্রোন। স্মার্ট এ ড্রোনটি ট্যাংক এবং ড্রোনের কম্বিনেশনে বানানো হয়েছে, আর এটার ট্যাংওয়া পার্ট অনেক রাপ এবং টাপ হয়ে থাকে আর ড্রোন থাকে এ ট্যাংওয়ালা পার্টের উপরে। স্মার্ট এ ড্রোনে এক 360 ডিগ্রী রোটেট ক্যামেরা দেওয়া হয়েছে যা 720p (সেভেন টু টুয়েন্টি পি) রেজুলেশনে ভিডিও ধারন করতে পারবেন, এবং যখনি আপনার মনে চাবে এ ট্যাংক ড্রোনকে মাটি থেকে আকাশে উড়াতে সিমপ্লি  এক বাটন প্রেস করতে হবে এটার রিমোর্টে এবং এটার ফ্লাইং আর্মস এক্সপেন্ড হয়ে যাবে ট্যাংওয়াল পার্ট সাথেই আকাশে উরা শুরু করবে এ ড্রোনটি। আর এটার হেল্পে আপনি এড়িয়াল ফটোস এবং ভিডিওও ধারন করতে পারবেন। ট্যাংকের হেব্বি ওয়েট থাকলেও এ ড্রোন অনেক স্পীডে উড়তে পারে, আর এটা অনেক স্টিবিলিটির সাথে ফ্লাই করে থাকে কোনো রকম প্রব্লেম ছাড়াই।  ট্যাংক থেকে ড্রোনে বা ড্রোন থেকে ট্যাংয়ে ট্রান্সফর্ম হতে এটার মাত্র কয়েক সেকেন্ড লাগে। অভার অল দেখা যায় এটা নরমাল ড্রোন থেকে অনেক বেটার হয়ে থাকে আর এটাকে টু ইন ওয়ান ড্রোন বলতে পারবেন। যদি বলা হয় ড্রোনটির প্রাইসের কথা তাহল সতেরো হাজার টাকার মাঝেই পার্ছেস করতে পারবেন।

 

গাইস আইহোপ আজকের Top 6 Best Most Useful Gadget লিস্টি আপনাদের অনেক ভালো লেগেছে। নিয়মিত Awesome Gadgets, Latest Gadgets, Most Useful Gadgets, New Gadgets সম্পর্কে জানতে আমাদের সাথে জুড়ে থাকুন।





Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published.